মাশরাফির প্রশ্ন : আমি কি চোর, আমি কি চুরি করি

প্রকাশিত: ফেব্রু ২৯, ২০২০ / ০৭:১৭অপরাহ্ণ
মাশরাফির প্রশ্ন : আমি কি চোর, আমি কি চুরি করি

বিশ্বকাপে ভালো সময় কাটেনি মাশরাফি বিন মর্তুজার। অভিজ্ঞ এই পেসার ৮ ম্যাচে পেয়েছিলেন মাত্র একটি উইকেট। এমন পারফরম্যান্সে নানা সমালোচনা হজম করতে হয়েছে তাকে। শুনতে হচ্ছিল, কবে অবসরে যাচ্ছেন সেই প্রশ্নও।

এ নিয়ে এতদিন তেমন কিছু বলতে শোনা যায়নি তাকে। বিশ্বকাপের পর জাতীয় দলের হয়ে এই প্রথম মাঠে নামছেন। এবারও সেই একই প্রশ্ন। তবে এবার আর চুপ থাকতে পারলেন না ওয়ানডে অধিনায়ক।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তার দলে থাকা নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। পরে তাকেই অধিনায়ক রাখা হলেও এটাই ‘অধিনায়ক’ হিসেবে তার শেষ সিরিজ সেটাও জানিয়ে দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন। এমন পরিস্থিতি মাশরাফির দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রথম।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বেলা দেড়টায় সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে হাজির হন মাশরাফি। সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। হঠাৎ এক প্রশ্নে চটে যান তিনি। এক সাংবাদিক অবসর ইস্যু ও আন্তর্জাতিক সিরিজে শেষ অধিনায়কত্ব নিয়ে করা প্রশ্নের সঙ্গে জুড়ে দেন মাঠে ‘আত্মসম্মান’ ইস্যু।

জবাবে মাশরাফি বলেন, ‘খেলার সঙ্গে আত্মসম্মান আমি মেলাতে পারি না। আমি কি চোর? আমার লজ্জা লাগবে কেন? আত্মসম্মানে লাগবে কেন? আমি কি মাঠে চুরি করি? আমি তো দেশের জন্য খেলি। খেলতে পারি না, আমাকে বাদ দিয়ে দেওয়া হবে। আমার লজ্জা কিসের? কতজন চুরি করছে। তাদের তো কেউ এ প্রশ্ন করে না।’

এরপর রাগান্বিত কণ্ঠে মাশরাফি বলেন, ‘এত প্রশ্ন থাকতে বার বার অবসরের বিষয় নিয়ে প্রশ্ন কেন? অবসরের বিষয়ে কিছু বললে বোর্ডকে বলব। একই প্রসঙ্গে বারবার আসা বিরক্তিকর।

মাশরাফি বলেন, ‘আমি উইকেট না পেতে পারি, এ জন্য আমার সমালোচনা আপনারা করবেন, সমর্থকরা করবে। লজ্জা পেতে হবে কেন? আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি, নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে খেলছি যে আমাকে লজ্জা পেতে হবে? সুতরাং এই বিষয়টির সঙ্গে আমি মোটেও একমত না।’

এর আগে বিসিবি সভাপতির বক্তব্যের ব্যাপারে জানতে চাইলে বিষয়টি খোলাসা করেননি মাশরাফি। বরং বোর্ডের উপর সিদ্ধান্ত ছেড়ে দেন। তিনি বলেন, ‘সবারই একটা বয়স আছে। যখন মুশফিক, তামিমরাও এই বয়সে যাবে। তখন নতুন খেলোয়াড়দের সঙ্গে পারফরম্যান্স মেলাবেন।’

অধিনায়কত্ব শেষ হওয়া বা লম্বা করার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি যেটা বলেছেন সেটা আপনাদের জন্য যথেষ্ট। আমার সঙ্গে কি কথা হয়েছে, সেটা বলার প্রয়োজন মনে করছি না।’

ফর্মে না থাকা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার বিষয়ে মাশরাফি বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো খেলোয়াড় গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারবে না, সে মাঠে নেমে ভালো পারফর্ম করতে পারবে। আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার বিষয়টি মাথায় নিচ্ছি না। ওটার নিজের মধ্যেই রাখেন।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন