মোদিকে কোনোক্রমেই বাংলার মাটিতে মেনে নিবে না মানুষ

প্রকাশিত: ফেব্রু ২৬, ২০২০ / ১০:৫০অপরাহ্ণ
মোদিকে কোনোক্রমেই বাংলার মাটিতে মেনে নিবে না মানুষ

বাংলাদেশের শান্তিকামী মানুষ দিল্লি গণ’হ’ত্যা’র খলনায়ক ও সাম্প্রদায়িক বি’ভা’জনকারী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশের মাটিতে কোনোক্রমেই মেনে নেবে না বলে মন্তব্য করেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

তিনি বলেছেন, আমরা গভীর উ’দ্বে’গ, বেদনা ও ক্ষো’ভে’র সঙ্গে লক্ষ্য করছি, ভারতে নতুন নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিকপঞ্জি তৈরির বি’রু’দ্ধে শান্তিপূর্ণভাবে প্র’তি’বাদের কারণে দেশটির সংখ্যা’ল’ঘু মুসলমান সম্প্রদায়ের ওপর নি’র্ম’ম হ’ত্যা’য’জ্ঞ শুরু হয়েছে।

ইতিমধ্যে প্রায় ২৫ ব্যক্তি নি’হ’ত হয়েছেন এবং বহু মানুষ আ’হ’ত হয়ে জীবন-মৃ’ত্যু’র সঙ্গে লড়ছেন।

বুধবার এক বিবৃতিতে জমিয়ত মহাসচিব আরও বলেছেন, ভারতের রাজধানী দিল্লিতে প্রায় ৩-৪ দিন ধরে পদ্ধতিগত এই হ’ত্যা চললেও দেশটির আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী, আদালত, রাজ্য সরকার; কেউই তা থামাতে এগিয়ে আসেনি।

এটি বিশ্বজুড়ে বিস্ময় তৈরি করেছে। এমনকি আহতদের হাসপাতালেও নেয়া যাচ্ছে না হা’ম’লার ভ’য়ে।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, আমরা দেখেছি ধর্মীয় স্বাধীনতা এবং উপাসনালয়ের নি’রা’পত্তা বিশ্বজুড়ে একটা স্বীকৃতি মৌলিক মানবাধিকার হলেও দিল্লিতে একের পর মসজিদে হা’ম’লা চলছে।

সেখানে মসজিদের মিনারগুলোতে হিন্দুধর্মীয় প্রতীক স্থাপন করা হচ্ছে। যা মুসলমানদের ঈমান-বিশ্বাস-অনুভূতির প্রতি চ’র’ম অ’ব’মাননাকর। ভারতে যে গুটিকয়েক নি’র’পেক্ষ প্রচারমাধ্যম রয়েছে তাদের কর্মীরা সংবাদ সংগ্রহকালে বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছেন এবং হা’ম’লার শি’কা’র হচ্ছেন।

তিনি বলেন, স্পষ্টতই এটা যে পরিকল্পিত ও পদ্ধতিগত গণ’হ’ত্যা তা পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, আমরা আরও দেখছি, পদ্ধতিগত এই হ’ত্য চালানোর সময় বাংলাদেশের সরকারসহ বিশ্বসমাজ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।

এই হা’ম’লার সময় দেশটিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট উপস্থিত থাকলেও তিনি এ বিষয়ে উচ্চ-বাচ্য করেননি। যা যুক্তরাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক ভাবমূর্তির জন্য চ’র’ম ল’জ্জা’জনক।

তিনি বলেন, আমরা এটা জেনেও গভীরভাবে উ’দ্বে’গ ও বে’দ’নাবোধ করছি যে, বাংলাদেশ সরকার এই গ’ণ’হ’ত্যা’র জন্য প্রধানতম দায়ী ব্যক্তি নরেন্দ্র মোদিকে শিগগিরই বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন সফরের জন্য। যা এ মুহূর্তে বাংলাদেশের মুসলমান জনগোষ্ঠীর জন্য চ’র’ম উ’স্কা’নি’মূলক।

তিনি বলেন, আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির শান্তি-শৃঙ্খলা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অটুট রাখার স্বার্থে এবং আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতে মুসলিমবি’দ্বে’ষী লাগাতার অ’প’তৎপরতার প্র’তি’বাদে মোদির বাংলাদেশ সফর বাতিল করা সরকারের অপরিহার্য কর্তব্য মনে করি।

বাংলাদেশের শান্তিকামী মানুষ দিল্লি গ’ণ’হ’ত্যা’র খলনায়ক ও সাম্প্রদায়িক বি’ভা’জ’নকারী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশের মাটিতে কোনোক্রমেই মেনে নিবে না।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী আরও বলেন, আমরা ভারতীয় এই গ’ণ’হ’ত্যা থামানোর জন্য জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

আমরা মনে করি রাষ্ট্রীয়ভাবে একই দাবি তুলে ধরা বাংলাদেশ সরকারের একটা নৈতিক, ধর্মীয় ও সাংবিধানিক দায়িত্ব। সাংবিধানিকভাবে বিশ্বের নি’পী’ড়ি’ত জনগোষ্ঠীর পাশে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

তিনি বলেন, আমরা বাংলাদেশের দল-মত-ধর্ম নির্বিশেষে সব মানুষের কাছে ভারতীয় এই গ’ণ’হ’ত্যা’র বি’রু’দ্ধে শান্তিপূর্ণ ও অ’হিং’স প্র’তি’বাদের আহ্বান জানাই।

আমরা মনে করি, চ’র’ম উ’স্কা’নি সত্ত্বেও এ মুহূর্তে বাংলাদেশে সংখ্যা’ল’ঘু’দের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করে আমরা আবারও বিশ্বের কাছে সাম্প্রদায়িক শান্তির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারব এবং একই সঙ্গে ভারতীয় গ’ণ’হ’ত্যা’র বি’রু’দ্ধেও জোরালো প্র’তি’বাদ জানাতে ভুলব না।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন