সাইনবোর্ডে বাংলা লেখা নিশ্চিতে অভিযানে নামছে ডিএনসিসি

প্রকাশিত: ফেব্রু ২৩, ২০২০ / ১২:৪৭অপরাহ্ণ
সাইনবোর্ডে বাংলা লেখা নিশ্চিতে অভিযানে নামছে ডিএনসিসি

প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে যাচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।

রোববার উত্তরার জসীম উদ্দিন থেকে সাইনবোর্ডে বাংলা ভাষা নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবেন ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুলকার নায়ন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিএনসিসির প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন।

গত বছরগুলোতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার প্রতিষ্ঠানে ডিএনসিসির দফায় দফায় অভিযান, জরিমানা এবং নানা পদক্ষেপের গ্রহণ করলেও চলতি বছরের আজ থেকে এ অভিযান শুরু করছে ডিএনসিসি।

ডিএনসিসি সূত্রে জানা গেছে, ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকার প্রত্যেকটি নামফলক, সাইনবোর্ড ইত্যাদিতে বাংলা ভাষা নিশ্চিত করতে ডিএনসিসির উচ্ছেদ অভিযান ও ভ্রাম্যমাণ আদালত অব্যাহত থাকবে।

এর আগে হাইকোর্ট বিভাগের ১৬৯৬/২০১৪ নং রিট পিটিশনে প্রদত্ত আদেশ অনুযায়ী সব প্রতিষ্ঠানের (দূতাবাস, বিদেশি সংস্থা ও তৎসংশ্লিষ্ট ক্ষেত্র ব্যতীত) নামফলক, সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি বাংলায় লেখা বাধ্যতামূলক করা হয়। স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে হাইকোর্টের আদেশটি ডিএনসিসি এলাকায় নিশ্চিত করার দায়িত্ব ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৮ সালে জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে ডিএনসিসির এখতিয়ারাধীন এলাকার যেসব প্রতিষ্ঠানের (দূতাবাস, বিদেশি সংস্থা ও তৎসংশ্লিষ্ট ক্ষেত্র ব্যতীত) নামফলক, সাইনবোর্ড, বিলবোর্ড, ব্যানার ইত্যাদি বাংলা ভাষায় লেখা হয়নি তা অবিলম্বে স্ব-উদ্যোগে অপসারণ করে সাতদিনের মধ্যে বাংলায় লিখে প্রতিস্থাপন করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছিল।

এছাড়া মাইকিং, বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রেস রিলিজ পাঠানোসহ ডিএনসিসির ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক পাতায়ও গণবিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশ করা হয়। ডিএনসিসির গণবিজ্ঞপ্তি বাস্তবায়ন না করার অপরাধে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন ২০০৯ অনুযায়ী বাংলায় সাইনবোর্ড না লেখা প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন