অবশেষে নিজের পদত্যাগ নিয়ে মুখ খুললেন ব্যারিস্টার সুমন

প্রকাশিত: ফেব্রু ১৭, ২০২০ / ০৮:৪৩অপরাহ্ণ
অবশেষে নিজের পদত্যাগ নিয়ে মুখ খুললেন ব্যারিস্টার সুমন

নিজের পদত্যাগ প্রসঙ্গে কথা বলেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদ্যবিদায়ী প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সুপ্রিম কোর্টে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘মানুষ পদ ছেড়ে যেতে চায় না। আমি সামাজিক কাজে বেশি সময় দেওয়ার কারণে পদত্যাগ করেছি।’

এর ফলে কোনো সমস্যায় পড়েছেন কিনা কিংবা নিজের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘প্রসিকিউটর পদে থাকার সময় এক লাখ টাকা বেতন পেতাম। এখন আমার স্ত্রী কিছুটা চিন্তা করছে। আমার ড্রাইভারও চাকরি ছেড়ে চলে গেছে।’

গাড়িচালকের চলে যাওয়া প্রসঙ্গে সুমন বলেন, ‘আমার ড্রাইভার হয়তো নিজের নিরাপত্তার জন্য চাকরি ছেড়ে দিয়ে থাকতে পারে। কারণ আগে নিরাপত্তার জন্য সঙ্গে একজন পুলিশ সার্বক্ষণিক গাড়িতে থাকতো। এখন আর থাকবে না।’

তিনি আরও বলেন, যোগ্যতা থাকলে আরও অনেক সুযোগ পাওয়া যাবে।

এসময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের বিদায়ী মেয়র সাঈদ খোকনের বিষয়েও কথা বলেন ব্যারিস্টার সুমন। তিনি বলেন, কেমন করে তিনি (সাঈদ খোকন) আবার ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য পদে নির্বাচন করতে চান!

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার একাত্তরের মুক্তিযু’দ্ধকালে সং’ঘ’টিত মানবতাবি’রো’ধী অ’প’রাধের বিচারের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর পদ থেকে পদ’ত্যা’গ করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। ওইদিন প্রসিকিউটর পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে ট্রাইব্যুনালের চিফ প্রসিকিউটরের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি।

পদত্যাগপত্রে তিনি লিখেছেন, ‘২০১২ সালের ১৩ নভেম্বর আমি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর হিসেবে যোগদান করি। যোগদানের পর থেকে বিভিন্ন মামলা অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে পরিচালনা করেছি।

ইদানিং বিভিন্ন সামাজিক স্বেচ্ছামূলক কাজে নিবিড়ভাবে জড়িত হওয়ার কারণে আন্তর্জাতিক অ’প’রাধ ট্রাইব্যুনালের মতো রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে সম্পূর্ণ নিষ্ঠার সাথে সময় দিতে পারছি না।

এমতাবস্থায় সরকারি কোষাগার থেকে বেতন নেওয়াকে আমি অনৈতিক বলে মনে করি। এ কারণে আমি বর্তমান পদ থেকে অব্যাহতি প্রার্থনা করছি।’

উল্লেখ্য, ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একজন জনপ্রিয় ব্যক্তি। ফেসবুকে ২২ লাখ মানুষ তাকে অনুসরণ করেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন