ঢাকায় এলো মেট্রোরেলের মকআপ, প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরই প্রদর্শন

প্রকাশিত: ফেব্রু ১৭, ২০২০ / ০৬:২৯অপরাহ্ণ
ঢাকায় এলো মেট্রোরেলের মকআপ, প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরই প্রদর্শন

মেট্রোরেলের একটি নমুনা ট্রেন মকআপ বা রেপ্লিকা আনা হয়েছে ঢাকায়। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পরই এটি প্রদর্শিত হবে। এ কোচ দিয়েই মানুষকে মেট্রোরেলে চড়ানো শেখানো হবে। তবে নমুনা কোচ হওয়ায় মূল পরিবহন বহরে এটি যুক্ত হবে না।

সোমবার সকালে মকআপটি মেট্রোরেলের উত্তরা দিয়াবাড়ির ডিপোতে এসে পৌঁছে। এরপর মেট্রোরেলের কর্মীরা কনটেইনার থেকে মকআপটি বের করেন।

ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক জানান, প্রদর্শনীর জন্য কোচটি আগামী মাস থেকেই উন্মুক্ত করা হবে। আর যাত্রীবাহী মেট্রোরেলের মূল কোচগুলো ১৫ জুন বাংলাদেশে এসে পৌঁছবে।

তিনি বলেন, ‘গত এক বছর ধরে জাপানে এগুলো তৈরি করা হয়েছে। দেশে আসার পর এগুলো অপারেশন কন্ট্রোল সেন্টারের (ওসিসি) সঙ্গে মিলে চলতে পারছে কিনা তার জন্য ট্রায়াল রান দেয়া হবে।’

এম এ এন ছিদ্দিক বলেন, ‘কোচটি জাপানের মিৎস্যুবিশি ও কাওয়াসাকি থেকে তৈরি করে আনা হয়েছে। এই কোচ শুধু প্রদর্শন করা হবে, যুক্ত হবে না যাত্রী পরিবহন বহরে।

মূল কোচগুলো যে উপাদান দিয়ে যেভাবে তৈরি করা হবে এটিও সেভাবেই তৈরি হয়েছে। উত্তরায় মেট্রোরেলের যে তথ্যকেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে সেখানে এটি সাধারণ মানুষের দেখার ও শেখার জন্য প্রদর্শিত হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘উত্তরার দিয়াবাড়িতে মেট্রোরেলের ডিপোর পাশে ভিজিটর সেন্টার নির্মাণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এমআরটি তথ্য ও প্রদর্শন কেন্দ্রের ভেতরেই রাখা হবে নমুনা ট্রেনটি।

সেখানেই দর্শনার্থীদের টিকিট কাটা, ট্রেনে চড়া, দাঁড়ানো, ট্রেন থেকে নামা- এ সব বিষয়ে ধারণা দেয়া হবে।’ স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তি উদযাপন বর্ষ-২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মেট্রোরেল প্রকল্পের উদ্বোধন করা হবে।

এর আগে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সংসদে ওবায়দুল কাদের জানান, চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেট্রোরেলের সার্বিক গড় অগ্রগতি ৪০ দশমিক ৩৬ শতাংশ। প্রথম পর্যায়ে নির্মাণের জন্য নির্ধারিত উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে আগারগাঁও অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৬৭ দশমিক ৯৭ শতাংশ।

দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্মাণের জন্য নির্ধারিত আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৩৫ দশমিক ৯৯ শতাংশ। ইলেক্ট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক (রেলকোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি ২৫ দশমিক ২৫ শতাংশ। ইতিমধ্যে ৯ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট দৃশ্যমান হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন