খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি চাইলে আবেদন করতে হবে : হানিফ

প্রকাশিত: ফেব্রু ১৫, ২০২০ / ০৩:৪৫অপরাহ্ণ
খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি চাইলে আবেদন করতে হবে : হানিফ

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া যদি অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে কারাগার থেকে মুক্ত হতে চান, তবে তাঁকে প্যারোলের জন্য সরকারের কাছে আবেদন করতে হবে। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ আজ শনিবার দুপুরে ‘ঢাকা ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অব চুয়াডাঙ্গা-ডুসাক’ আয়োজিত বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা জানান।

আইনি প্রক্রিয়ায় আদালত থেকে জামিন নেওয়া আর অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে সরকারের কাছে প্যারোলের আবেদন ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তির আর কোনো পথ খোলা নেই বলেও জানান হানিফ। তিনি বলেন, সরকারের কাছে আবেদন না করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদককে ফোন করে সরকারকে এ বিষয়ে নমনীয় হওয়ার কথা বলে বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছেন। বাংলাদেশের নাগরিক এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে খালেদা জিয়া সরকারের কাছ থেকে সর্বোচ্চ চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন বলেও দাবি করেন আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের হাবিবুল্লাহ কনফারেন্স হলে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ডুসাক। ডুসাকের সভাপতি মো. নাজমুল হোসাইন সুজনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সাংসদ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম, ডুসাকের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও সাংবাদিক আহমেদ পিপুল প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ডুসাকের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুস সালাম।

অনুষ্ঠানে হানিফ বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মামলা এতিমের অর্থ আত্মসাতের কারণে। এই মামলা আওয়ামী লীগ সরকার করেনি। এটা ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে করা হয়েছিল, যা আদালতে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে দণ্ডিত হয়ে তিনি এখন কারাগারে আছেন।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রাজনীতি না করে মানবিক কারণে খালেদা জিয়ার মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু আমি অবাক হই, খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে রাজনীতি কারা করছে।’

এ সময় খালেদা জিয়ার মুক্তির দুটি উপায়ও জানান হানিফ। বলেন, ‘তাঁর (খালেদা জিয়া) মুক্তির জন্য দুটি পথ খোলা আছে। একটি হলো তাঁকে আইনি প্রক্রিয়ায় লড়াই করে জামিন নেওয়া। এবং অন্যটি প্যারোলে মুক্তির জন্য সরকারের কাছে আবেদন করা, যা ওনারা এখনো করেননি।’

আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক দাবি করেন, ‘খালেদা জিয়া অসুস্থ। তাই একটি দলের শীর্ষ নেত্রী হিসেবে একজন সাধারণ মানুষ হিসেবে কারাবিধান অনুযায়ী চিকিৎসা পাওয়ার সুযোগ আছে। সে অনুযায়ী তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

বিএনপির প্রতি অনুরোধ জানিয়ে হানিফ বলেন, ‘আপনারা খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে নোংরা রাজনীতি বন্ধ করেন। আপনারা রাজনীতি করছেন সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার জন্য। যদি আপনারা প্রয়োজন মনে করেন তাহলে সরকারের কাছে আবেদন করেন। যদি আইনসিদ্ধ হয় তাহলে সরকার বিবেচনা করবে। কিন্তু টেলিভিশনে বক্তব্য দিয়ে নোংরা রাজনীতি করবেন এটা দেশবাসী দেখতে চায় না।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন