ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়ায় বর’খা’স্ত হলো দুই শীর্ষ কর্মকর্তা

প্রকাশিত: ফেব্রু ৯, ২০২০ / ০২:১৯অপরাহ্ণ
ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেয়ায় বর’খা’স্ত হলো দুই শীর্ষ কর্মকর্তা

রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটে অভিশংসন বিচারে অল্পের জন্য রেহাই পাওয়ার দুদিনের মধ্যেই অভিশংসন বিচারে সাক্ষ্য দেয়া দুই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে ব’র’খা’স্ত করেছেন ট্রাম্প।

এ দুই কর্মকর্তা হলেন – ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) মার্কিন রাষ্ট্রদূত গর্ডন সন্ডল্যান্ড এবং মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের ইউক্রেনবিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলেক্সান্ডার ভিন্ডম্যান।

স্থানীয় সময় শুক্রবার দুপুরে এই দুই শীর্ষ কর্মকর্তাকে ব’র’খা’স্ত করেন ট্রাম্প।

তারা দুজনেই অভিশংসনের শুনানির সময়ে ট্রাম্পের বি’রু’দ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি ও সিএনএন।

ব’র’খা’স্তের ব্যাপারে ইউক্রেনে জন্ম নেয়া ভিন্ডম্যানের আইনজীবী ডেভিড প্রেসম্যান বিবিসিকে বলেন, ‘সত্য বলায় আমার মক্কেলকে হোয়াইট হাউস থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

সত্যের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকায় ভিন্ডম্যানকে চাকরি, পেশাজীবন ও ব্যক্তিগত গোপনীয়তার মূল্য চুকাতে হলো। তবে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, হোয়াইট হাউজে তিনি পুরোপুরি দায়িত্বের সঙ্গে দেশ ও প্রেসিডেন্টের সেবা করেছেন।’

ভিন্ডম্যানকে ব’র’খা’স্ত করার তিন ঘণ্টা পর গর্ডন সন্ডল্যান্ডকে রাষ্ট্রদূত পদ থেকে ব’র’খা’স্ত করা হয়।

সন্ডল্যান্ডের ব’র’খা’স্তের বিষয়ে তার আইনজীবী এক বিবৃতিতে বলেন, ‘তাকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূত হিসেবে নিয়োগ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট। এ কথা জানিয়ে আমাকে বলা হয়, শিগগিরই তা কার্যকর করতে আমাকে আবার ডাকবেন তিনি।’

এ দুই শীর্ষ কর্মকর্তার ব’র’খা’স্তের ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করেননি।

এ বিষয়ে এক প্রশ্নে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি ভিন্ডম্যানের ব্যাপারে খুশি নই।’

প্রসঙ্গত, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে গত বছরের ২৫ জুলাই টেলিফোনে আলাপচারিতা থেকে অভিশংসনের সূত্রপাত হয়।

বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর অভিযোগ উঠে, আগামী নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী জো বাইডেনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে তার ছেলে হান্টার বাইডেনের অতীত ব্যবসার ব্যাপারে তদন্তের জন্য জেলেনস্কিকে চাপ দেন ট্রাম্প।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাম্পের বি’রু’দ্ধে তদন্ত করে প্রতিনিধি পরিষদ। পরে গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর পরিষদে অভিশংসিত হন ট্রাম্প।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন