শ্রীদেবীর মৃত্যু স্বাভাবিক নয়, দাবি ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞের

শুরু থেকেই রহস্যটা দানা বেঁধেছিল। বলিউড তারকা শ্রীদেবীর মৃত্যুর প্রায় দেড় বছর পর ফের মাথা চাড়া দিল এক নয়া তথ্য। এক অভিজ্ঞ ফরেনসিক বিশেষজ্ঞের কথায়, শ্রীদেবীর মৃত্যু স্বাভাবিক নয়! যা শুনে চমকে উঠছেন অনেকেই।

বলিউড অভিনেত্রীর অকালপ্রয়াণ কি নিছকই আকস্মিক মৃত্যু। নাকি খুন হয়েছিলেন তিনি? যাদি তাঁকে খুন করা হয়ে থাকে তাহলে অপরাধী কে? এমন হাজারো প্রশ্ন এখনও ঘোরা ফেরা করে বলিউডের অন্দরে।

২০১৮ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি। দুবাইয়ে সপরিবারে ঘনিষ্ঠ আত্মীয় মোহিত মারওয়ারের বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শ্রীদেবী। সেখানেই বিলাসবহুল হোটেলের বাথরুমে বাথটবে ডুবে মৃত্যু হয়েছিল শ্রীদেবীর, এমনটাই প্রকাশ্যে এসেছিল। তবে, হিসেব মেলাতে পারেননি অনেকেই। ঠান্ডা মাথায় ছক কষে খুন করা হয়েছিল অভিনেত্রীকে, দাবি উঠেছিল সেই সময়। খুনের ঘটনায় নাম এসেছিল শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুরেরও। সেই রহস্যের গন্ধ পেয়ে মামলা দায়ের হয়। তারপর থেকেই শ্রীদেবীর মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয় ধোঁয়াশা। কিন্তু তদন্তে কোনওরকম গলদ না পেয়ে মামলা শেষ করে দেয় পুলিশ। এমনকী, গতবছর মে মাসে ভারতের শীর্ষ আদালতের তরফেও খারিজ করে দেওয়া হয় এই মামলা।

তবে অভিনেত্রীর মৃত্যুর পর প্রায় দেড় বছর বাদে ফের মাথা চাড়া দিল এক নয়া তথ্য। সৌজন্যে ডক্টর উমাদাথন। ঘটনাক্রম হল- কেরল জেলের ডিজিপি ঋষিরাজ সিংয়ের বন্ধু ডক্টর উমাদাথনকে শ্রীদেবীর মৃত্যু নিয়ে জানতে চেয়েছিলেন। তখনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন অভিজ্ঞ ফরেন্সিক বিশেষজ্ঞ উমাদাথন। তাঁর মতে, সম্ভবত ওই মৃত্যু স্বাভাবিক নয়। আবার অ্যাক্সিডেন্টাল ডেথও নয়। হতে পারে তাঁকে খুন করা হয়েছে।

কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, শ্রীদেবীর মৃত্যু যেভাবে হয়েছে, কোনও মানুষ সেভাবে এক ফুট জলে ডুবে মারা যেতে পারে না। মদের নেশায় চুর হয়ে থাকলেও তা সম্ভব নয় বলেই মত উমাদাথনের।

এরপরই তিনি যা বলেছেন তাতে চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। তিনি জানিয়েছেন, একমাত্র কেউ যদি অভিনেত্রীর পা এবং মাথা পানিতে ডুবিয়ে চেপে ধরে রাখেন তবেই এমন মৃত্যু সম্ভব। সম্প্রতি ফরেনসিক বিশেষজ্ঞের সেই অভিজ্ঞতার কথা একটি সংবাদ পত্রের সাক্ষাৎকারে জানান ঋষিরাজ সিং। তার পরই শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত