ধামরাইয়ের স্কুলছাত্রের প্রাণ গেল জন্মদিনের দিন

প্রকাশিত: ফেব্রু ২, ২০২০ / ০১:১২পূর্বাহ্ণ
ধামরাইয়ের স্কুলছাত্রের প্রাণ গেল জন্মদিনের দিন

সন্ধ্যায় ছিল ধামরাইয়ের স্কুলছাত্র মাসুদ রানার ১৪তম জন্মদিনের উৎসব। কিন্তু বিধিবাম, শনিবার বিকালেই ঢাকার ধামরাইয়ে সড়ক দু’র্ঘ’টনায় প্রাণ গেল এ স্কুলছাত্রের। একমাত্র ছেলেকে হারিয়ে বা’ক’রুদ্ধ হয়ে গেছেন বাবা-মা।

নিহত মাসুদ রানা উপজেলার জালসা দক্ষিণপাড়া গ্রামের মো. আলতাফ হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, মাসুদ রানা ছুটি শেষে বাড়ি যাওয়ার জন্য ঢাকা-কালামপুর-মির্জাপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের কাওয়ালীপাড়া বাজারের পূর্ব পাশে নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রিন্সিপাল হাফিজ স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে অপেক্ষা করছিল।

এ সময় দ্রুতগতির একটি ঘা’ত’ক ট্রাক ওই স্কুলছাত্রকে পেছন দিক থেকে চাপা দিলে তার দেহ মাথা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারায় সে।

দুর্ঘটনার খবর পেয়েই স্থানীয় জনতা, স্কুলের ছাত্র-শিক্ষক ও পুলিশ ব্যাড়িকেড সৃষ্টি করে ওই ঘাতক ট্রাকটি চালকসহ আটক করেছে।

এ দুর্ঘটনায় একমাত্র ছেলের মৃত্য সংবাদ শুনে মা-বাবা পাগল হয়ে ছুটে আসেন ছেলের কাছে। ছেলের ছিন্নভিন্ন লাশ দেখে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন নিহত ওই স্কুলছাত্রের মা-বাবা দু’জনই। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় স্কুলছাত্র মাসুদ রানার ছিল ১৪তম জন্মদিনের অনুষ্ঠান। তাই বাড়িতে অনুষ্ঠানের কাজে ব্যস্তা ছিলেন মা-বাবা। ছেলের আবদার রাখতে গতবারের চেয়ে এবারের জন্মদিনের অনুষ্ঠান জৌলুসময় করতে বিরিয়ানি ও পায়েস রান্নার পাশাপাশি বড় কেক আনা হয়।

অপূর্ব সাজে সাজগোজও করা হয় ওই স্কুলছাত্রের রুমটি। সড়ক দু’র্ঘ’টনায় একমাত্র ছেলের মৃ’ত্যু খবর পেয়ে পাগলপারা হয়ে যান মা-বাবা।

কাওয়ালীপাড়া বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. রাসেল মোল্লা বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সড়কে ব্যারিকেড দিয়ে ওই ঘাতক ট্রাক ও চালককে আ’ট’ক করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন