বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ ইস্যুতে নাক গলাচ্ছেন কূটনীতিকরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: জানু ৩০, ২০২০ / ০৬:৪৯অপরাহ্ণ
বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ ইস্যুতে নাক গলাচ্ছেন কূটনীতিকরা: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আসন্ন ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন ঘিরে সম্প্রতি বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিটিশ হাইকমিশনে মিলিত হওয়ার বিষয়টিতে আপত্তি তুলেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ আপত্তির কথা জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কূটনীতিকরা নিজেদের কাজ বাদ দিয়ে আমাদের ডমেস্টিক (অভ্যন্তরীণ) ইস্যুতে নাক গলাচ্ছেন। এটা উচিত নয়। ডিপ্লোম্যাটরা কোড অব কন্ডাক্ট মেনে কাজ করবেন। আর যারা মানবেন না, তাদের বলব- দেশ থেকে চলে যান।

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন কতটা সুষ্ঠু হবে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে আবদুল মোমেন বলেন, এ নির্বাচন হবে আদর্শ নির্বাচন। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন। এ নির্বাচন অত্যন্ত স্বচ্ছ হবে।

এদিকে আসন্ন ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পর্যবেক্ষণে থাকা বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) সতর্ক থাকতে অনুরোধ জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে গিয়ে দূতাবাস কর্মকর্তারা যেন তাদের কর্মপরিধির সীমা লঙ্ঘন না করেন- সে বিষয়ে সতর্ক থাকতে ইসির প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার নিজ কার্যালয়ে তার সঙ্গে বৈঠকের পর আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচটি ইমাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বৈঠকে সিইসি ছাড়া উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার ও কবিতা খানমসহ ইসির অন্য কর্মকর্তারা।

আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলে ছিলেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, প্রচার সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য সানজিদা খানম প্রমুখ।

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা বলেন, ‘অন্যান্য দেশে পর্যবেক্ষণে অনেক রকম বিধি-নিষেধ থাকে। অনেক নিয়মকানুন মানতে হয়। আমাদের দেশে অনেক সময় অনেকে অনেক কথা বলে ফেলেন, যেগুলো আমাদের সার্বভৌমত্বকে কটাক্ষ করার শামিল। আজকের বাংলাদেশ আর আগের বাংলাদেশ নেই। গণতন্ত্র সুসংহত, উন্নত বাংলাদেশ। আমরা কোন উচ্চতায় চলে গেছি সেটা গতকালের (বুধবার) মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শুনলেই বোঝা যাবে।’

তিনি বলেন, ‘তারা যেন নির্বাচন পর্যবেক্ষণের আন্তর্জাতিক বিধি-বিধান মেনে চলেন। কোনো বিশেষ দেশের কেউ যেন বেশি মাতব্বরি না করেন। আমরা চাই, তারা সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করুক। এবং সেটা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক কোড অব কন্ডাক্ট মেনে।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন