নারায়ণগঞ্জে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছেন তার স্বামী।

মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পশ্চিম দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় মোশারফ হোসেনের ভাড়াটে বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- গার্মেন্টস শ্রমিক পলি বেগম ও তার স্বামী চা বিক্রেতা জাামাল হোসেন। তাদের দুজনের বাড়ি পটুয়াখালী জেলার মীর্জাগঞ্জ থানার ময়দাশ্রীনগর গ্রামে। এটি দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে ছিল।

এলাকাবাসী ও বাড়ির মালিক জানান, তালাকপ্রাপ্ত পূর্বের স্বমাীর সাথে যোগাযোগ রাখায় পলির সাথে জামাল হোসেনের প্রায়ই ঝগড়া হতো। মঙ্গলবার সকালে এ কারণে আবারও তাদের দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রী পলিকে পিটিয়ে ও ঘরে থাকা বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর বিষ পান করেন তার স্বামী জামাল হোসেন।

এসময় আশেপাশের লোকজন এসে গুরুতর অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে শহরের জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার পলিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে আশংকাজনক অবস্থায় জামালকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার (ওসি) আসলাম হোসেন জানান: স্বামী-স্ত্রী দুইজনেরই লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত