‘মোদি গণতন্ত্রকে ধ্বং’সের মুখে ঠে’লে দিচ্ছেন হিন্দু রাষ্ট্র গড়ার প্রচেষ্টায়’

প্রকাশিত: জানু ২৫, ২০২০ / ১০:২৩পূর্বাহ্ণ
‘মোদি গণতন্ত্রকে ধ্বং’সের মুখে ঠে’লে দিচ্ছেন হিন্দু রাষ্ট্র গড়ার প্রচেষ্টায়’

সুইজারল্যান্ডের দাভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম-এর মঞ্চ থেকে নরেন্দ্র মোদির স’রকারকে আ’ক্রমণ করলেন মা’র্কিন-হাঙ্গেরীয় ধনকুবের জর্জ সোরস। ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টায় গণতন্ত্রকে মোদি ‘ধ্বং’সের মু’খে’ ঠে’লে দিচ্ছেন বলে দা’বি করেছেন সোরস।

তিনি বলেন, “কাশ্মীরের মতো মু’সলিম প্রভাবিত অঞ্চলে মোদি স’রকারের ক’ঠোর পদক্ষেপ একটা বড় আ’শঙ্কার বি’ষয়। মোদির হিন্দু রাষ্ট্র বানোনোর তাগিদে দেশের লাখ লাখ মু’সলিমকে তাদের না’গরিকত্ব থেকে ব’ঞ্চিত করার হু’মকি দিচ্ছেন।”

সরাসরি না বললেও তিনি যে সংশোধিত না’গরিকত্ব আইন (সিএএ) এবং ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্র’ত্যাহারের কথাই বলতে চেয়েছেন, সোরসের মন্তব্য থেকে তা স্পষ্ট।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের এই মঞ্চ থেকেই তিনি আ’ক্রমণ করেছেন আ’মেরিকা, চীন, রাশিয়ার মতো শ’ক্তিধর দেশগুলোকে। বিশ্বজুড়ে কীভাবে রাষ্ট্রনেতারা একনায়কতন্ত্রকে প্রশ্রয় দিয়ে চলেছেন সেই প্রসঙ্গও তুলে ধরে দুঃ’খপ্রকাশ করেছেন সোরস। এরপরই ভারতের প্রসঙ্গ উত্থাপন করে মোদির শাসননীতি নিয়ে আ’শঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

৩৭০ অনুচ্ছেদ প্র’ত্যাহার নিয়ে আন্তর্জাতিক মহল সরব হলেও পাশাপাশি জানিয়ে দিয়েছিল বিষয়টি ভারতের অভ্যন্তরীণ। সিএএ নিয়ে আন্তর্জাতিক মহল থেকে তেমন কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তবে দেশের অভ্যন্তরে যেভাবে এই আইনের বি’রোধিতায় একটা সরগরম পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, যেভাবে জনমত নির্বিশেষে সকলেই রাস্তায় নেমে প্র’তিবাদে গ’র্জে উঠেছেন, তা নিয়ে মোদিকে প্রবল স’মালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। সমালোচনাটা এতো দিন সী’মাবদ্ধ ছিল দেশের অভ্যন্তরেই। এ বার সমালোচনাটা এল দাভোসের মঞ্চ থেকে।

শুধু মোদিই নয়, সোরসের নিশানায় ছিলেন মা’র্কিন প্রে’সিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও। তাকে এক জন প্র’তারক হিসেবেও উল্লেখ করেছেন সোরস। নিজের স্বার্থ দেখতে গিয়ে ট্রাম্প দেশের স্বার্থকে জ’লাঞ্জলি দিতেও ই’তস্তত করেন না বলেও দাবি সোরসের। শুধু তাই নয়, ভোটে জেতার জন্য ট্রাম্প যা খুশি করতে পারেন বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন