চোরের ভ’য়ে গরু নিয়ে এক ঘরে থাকছে মানুষ

প্রকাশিত: জানু ২৪, ২০২০ / ১২:০০অপরাহ্ণ
চোরের ভ’য়ে গরু নিয়ে এক ঘরে থাকছে মানুষ

সিরাজগঞ্জের কাজিপুরের দু’র্গম চরাঞ্চলের নাটুয়ারপাড়ায় চোরের ভ’য়ে গরু আর পরিবার নিয়ে এক ঘরে বসবাস করছে বলে জানা গেছে!

উপজে’লার রেহাইশুরিবেড় গ্রামে গরু চোরের ভ’য়ে গোয়াল ঘরের পরিবর্তে দুই হ’তদরিদ্র পরিবার গরু পালন করছে বসতঘরে। রেহাইশুরিবেড় গ্রামসহ পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলোতে গরুচো’র আ’তঙ্ক বিরাজ করায় দুইটি পরিবার এক সপ্তাহ ধ’রে এমন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জ জে’লার কাজিপুর উপজে’লার দু’র্গম রেহাইশুড়িবেড় গ্রামের কৃষক সুলতান ব্যাংক লোনের টাকায় দুটো গরু ক্রয় করেন। গত শনিবার রাতে তার দুটো গরু চু’রি হয়ে যায়।

এর আগে রেহাইশুরিবেড় গ্রামের মান্নান শেখের একটি গরু ও পানাগাড়ী গ্রামের মো: শ্যামল হোসেনের একটা গাভী ও দুইটা ষাড় গরু চুরি হয়েছে। এরপর থেকেই এলাকার কৃষকরা গরু পালন করছেন বসতঘরে।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, পেশায় দিনমজুর তোফাজ্জলের বাবা এক বছর পূর্বে ক্যা’ন্সারে আ’ক্রান্ত হয়ে মা’রা যান। সহায় সম্বল বলতে ১৩ শতাংশের ভিটে বাড়ি রয়েছে। স্ত্রী, দুই ছেলেমেয়ে ও প্রতিব’ন্ধী বোনকে নিয়ে অতিক’ষ্টে দিনাতপাত করছেন তিনি।

বাবার চিকিৎসার সময় প্রায় অ’র্ধলক্ষ টাকার ঋণ পরিশোধের তোফাজ্জলের একমাত্র অবলম্বন অস্ট্রেলিয়ান জাতের আনুমানিক পঞ্চাশ হাজার টাকা মূল্যের এই ষাঁড় গরুটি।

তোফাজ্জলের স্ত্রী ইয়াসমিন জানান, গত শনিবার সন্ধ্যার পর চো’রের দল আমাদের ষাঁড় গরুটি নিয়ে যাওয়ার সময় প্রতিবেশীরা টের পেয়ে ডাক-চি’ৎকার দিলে চো’র পা’লিয়ে যায়। আমরা আশায় দিন গুণছি, গরুটি বড় হলে বিক্রি করে ঋ’ণ পরিশোধ করব, তাই গরুর নিরাপত্তায় আমরা বসতঘরে গরুর সাথে বাস করছি।

একই গ্রামের দিনমজুর আল আমীনের স্ত্রী শেফালি বেগম জানান, কী করব ভাই! চো’রের ডরে গরু আর পোলাপান নিয়া একঘরে বাস করছি। এলাকায় গরুচু’রির উপদ্রব বাড়ায় গোয়ালঘরে গরু পালতে সাহস পাই না।

প্রতিবেশী সুরুজ আলী জানান, এলাকায় গরুচোর আ’তঙ্ক থাকায় আমি প্রতিরাতে দুই তিনবার উঠে গোয়ালঘর চেক করি। এদিকে গরু চুরি বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের কাছে দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন