তিন সন্তানকে ঘুমপাড়ানি গান গেয়ে শ্বা’স’রোধ করে হ’ত্যা করলো মা

প্রকাশিত: জানু ২২, ২০২০ / ১০:৪৩অপরাহ্ণ
তিন সন্তানকে ঘুমপাড়ানি গান গেয়ে শ্বা’স’রোধ করে হ’ত্যা করলো মা

একসঙ্গে তিন সন্তানকে শ্বা’স’রো’ধ করে খুন করার অ’ভি’যো’গে ২২ বছরের এক তরুণীকে গ্রে’ফ’তা’র করল পুলিশ। জেরায় সে অ’প’রাধ স্বীকার করেছে বলে জানা গিয়েছে। তবে খুনের কারণ নিয়ে এখনও ধ’ন্দে পুলিশ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার ফিনিক্স শহরে সোমবার রাতে এমনই ঘটনা ঘটেছে। ওই তরুণীর নাম রেচেল হেনরি বলে জানা গিয়েছে। নিজের দুই মেয়ে এবং এক ছেলেকে সে খু’ন করেছে বলে অভিযোগ, যাদের বয়স যথাক্রমে ৭ মাস, ১ বছর এবং ৩ বছর।

স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, সম্প্রতি ওকলাহোমা থেকে ফিনিক্সে এসে ওঠে রেচেল। সেখানে একটি বাড়ির নীচের তলা ভাড়া নেয় সে। বাড়িওয়ালা এবং এক আত্মীয়ের উপস্থিতিতে সোমবার রাতে ওই বাড়িতেই তিন সন্তানকে এক এক করে খু’ন করে।

পুলিশকে দেওয়া বয়ানে রেচেল জানিয়েছে, বাড়িওয়ালা এবং রাতে খাওয়া-দাওয়ার পর প্রথমে বড় মেয়ের নাক ও মুখ চে’পে ধরে সে। তিন বছরের ছেলে তাকে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু মেয়ের ছ’ট’ফটানি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত হাত সরায়নি সে। তার পর শোওয়ার ঘরের মেঝেয় ফেলে ছেলের উপর চেপে বসে। ছেলে হাত-পা ছুড়তে শুরু করলে, ঘুমপাড়ানি গান গেয়ে তাকে খু’ন করে সে।

এর পর সাত মাসের মেয়েকে প্রথমে বোতলে করে দুধ খাওয়ায়। তার পর গান গাইতে গাইতে তাকেও শ্বা’স’রো’ধ করে খু’ন করে। বাড়িতে উপস্থিত বাকি দুই সদস্য যাতে টের না পায়, তার জন্য খু’নে’র পর নি’থ’র দেহগুলি সোফায় এমন ভাবে শুইয়ে দেয় সে, যাতে মনে হয় তারা ঘুমোচ্ছে।

কিন্তু গভীর রাতে বাচ্চাগুলিকে ওই ভাবে শুয়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় ওই আত্মীয়ের। তিনিই পুলিশকে খবর দেন। তারা এসে শিশুগুলিকে মৃ’ত বলে ঘোষণা করে। ওই আত্মীয়কে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পারে, রেচেল মা’দ’কাসক্ত।

নিয়মিত মে’থা’ম্ফেটামাইন সেবন করে সে। তার পরেই রেচেলকে হেফাজতে নেয় পুলিশ। জেরা শুরু হতেই সে অপরাধ স্বীকার করে বলে জানিয়েছেন ফিনিক্সের পুলিশ সার্জেন্ট মার্সিডিজ ফরচুন। তবে খু’নে’র কারণ এখনও জানা যায়নি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন