‘সে অভিযোগ দিচ্ছে, কিন্তু উন্নয়নের কোনো রোডম্যাপ দিতে পারেনি’

প্রকাশিত: জানু ২১, ২০২০ / ০৩:০৯অপরাহ্ণ
‘সে অভিযোগ দিচ্ছে, কিন্তু উন্নয়নের কোনো রোডম্যাপ দিতে পারেনি’

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের কথা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘আমার ভাতিজা শুরু থেকে শুধুই অভিযোগ দিয়ে আসছে। কিন্তু উন্নয়নের কোনো রোডম্যাপ দিতে পারেনি। এই ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কোথায় কমিউনিটি সেন্টার করবে, কোথায় খেলার মাঠ করবে। তা কিন্তু বলেনি। শুধু অভিযোগই দিয়ে যাচ্ছে। আমি বলছি উন্নয়নের কথা। আর সে দিচ্ছে অভিযোগ।’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বাড্ডা সাতারকুল এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণাকালে এক পথসভায় এসব কথা বলেন আতিকুল ইসলাম।

আতিকুল বলেন, ‘আমি যদি নির্বাচিত হই কোথায় কমিউনিটি সেন্টার হবে, কোথায় মসজিদ হবে, কোথায় মন্দির হবে, কোথায় খেলার মাঠ হবে তার একটি পরিকল্পনা আমার সাবেক কাউন্সিলরদের নিয়ে আমি করেছি।’

ঢাকা উত্তর সিটির সাবেক এই মেয়র বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, নতুন যে ১৮টি ওয়ার্ড হয়েছে, এগুলোতে সরু কোনো রাস্তা থাকবে না। চওড়া রাস্তা ও প্রশস্ত ফুটপাথ থাকবে। এজন্য একনেকে চার হাজার ২৬৮ কোটির একটি ফাইল রেডি আছে। এই টাকা দিয়ে ফুটপাথ হবে, খেলার মাঠ হবে, আরো অন্যান্য উন্নয়নমূলক কাজ হবে।’

আতিকুল ইসলাম আরো বলেন, ‘আমি যদি নির্বাচিত হই, প্রতি মাসে টাউনহল সভা হবে। আজকে যেমন হাতে তালি দিয়েছেন। কাজ না করলে সেদিন সভায় তেমনই গালি দিবেন।’

প্রতি বছর আমাকে এবং আমার কাউন্সিলরদের সম্পদের বিবরণী দিতে হবে বলে জানিয়ে আতিকুল বলেন, ‘ঢাকা উত্তরে মাদকের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করা হবে।’

২০৪১ সালের যে লক্ষ্যমাত্রা তা পূরণ করতে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ৪১ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ঠেলাগাড়ি মার্কার কাউন্সিলর প্রার্থী শফিকুল ইসলামকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে বলেন, ‘ঠেলাগাড়ি চলে না, যদি আপনারা ভোট দিয়ে ঠেলাগাড়িকে জয়যুক্ত করেন তাহলে ঠেলাগাড়িতে করে ময়লা পরিষ্কার করা হবে।’

সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী কামরুন্নাহারকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে বলেন আতিকুল বলেন, ‘আপনারা যদি তাঁকে নির্বাচিত করেন। এলাকায় প্রত্যেকটি গলিতে বাসায় বাসায় গিয়ে ভালোমন্দের দেখভাল করবেন এই প্রার্থী।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন