ই’রানে প্লেন বি’ধ্বস্ত নিয়ে মুখ খুলল রাশিয়া, ঘটনার নতুন মোড়

প্রকাশিত: জানু ১৮, ২০২০ / ০৫:৫১অপরাহ্ণ
ই’রানে প্লেন বি’ধ্বস্ত নিয়ে মুখ খুলল রাশিয়া, ঘটনার নতুন মোড়

ইরানে মি’সাইল ছু’ড়ে ইউক্রেনের যাত্রীবাহী প্লেন বি’ধ্বস্তের ঘটনায় নতুন মোড় নিয়েছে। এ ঘটনায় যখন বেশ চা’পে তে’হরান তখন মুখ খুলল রাশিয়া। বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় পাঁচটি দেশ একজোট হয়েছে ই’রানের বি’রুদ্ধে।

রাশিয়া বলছে, ই’রান মি’সাইল ছো’ড়ার ঠিকে আগে অন্তত ৬টি মার্কিন যু’দ্ধবিমান হা’মলার উদ্দেশ্যে ই’রান সী’মান্তে অবস্থান করছিল। সম্ভাব্য মা’র্কিন হা’মলার ওই খবরে ভড়কে গিয়েই ইরান ভুলবশত মি’সাইল ছু’ড়ে ইউক্রেনের ওই প্লেনটি ভূ’পাতিত করে বলে জানায় তারা।

শুক্রবার মস্কোতে রাশিয়ার প’ররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। লাভরভ বলেন, ই’রাকের মা’র্কিন বিমানঘাঁটিতে ই’রানের ক্ষে’পণাস্ত্র হা’মলার প্র’তিশোধ নিতে সেদিন ই’রান সী’মান্তে যু’ক্তরাষ্ট্রের অন্তত ৬টি অত্যাধুনিক স্টিলথ এফ-৩৫ যু’দ্ধবিমান অবস্থান করছিল। যদিও এ তথ্য আরও যাচাইবাছাইয়ের প্রয়োজন আছে।

গত আট জানুয়ারি ভুলবশত ই’রানের আকাশ প্র’তিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে নিক্ষি’প্ত ক্ষে’পণাস্ত্রের আ’ঘাতে ইউক্রেনের একটি যাত্রীবাহী বিমান ভূ’পাতিত হয়। এ ঘটনায় তে’হরান থেকে কিয়েভ হয়ে টরেন্টোগামী বোয়িং ৭৩৭ বিমানটির ১৭৬ আরোহীর সবাই প্রা’ণ হা’রান। হতভাগ্য এসব মানুষের মধ্যে ১৪৭ জনই ই’রানি নাগরিক। বাকি ২৯ জন ইউক্রেন, কানাডা, সুইডেন, আফগানিস্তান ও ব্রিটেনের নাগরিক ছিলেন।

ই’রানের স’শস্ত্র বাহিনী এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, দেশের আশপাশে মা’র্কিন স’ন্ত্রাসী বা’হিনীর জ’ঙ্গিবিমানের আনাগোনা বেড়ে যাওয়ার কারণে ই’রানের আকাশ প্র’তিরক্ষা ব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছিল।

এ অবস্থায় ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমান ই’রানের একটি স্পর্শকাতর স্থাপনার আকাশে চলে আসায় ভুল করে সেটি লক্ষ্য করে ক্ষে’পণাস্ত্র নি’ক্ষেপ করা হয়। রুশ প’ররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ তার বক্তব্যে প্রকারান্তরে ই’রানের স’শস্ত্র বাহিনীর বিবৃতির সত্যতা নিশ্চিত করলেন।

উল্লেখ্য, পাঁচটি দেশ একজোট হয়ে এবার ইউক্রেনের বিমান বি’ধ্বস্তের ক্ষ’তিপূরণ চাওয়ায় চ’রম কো’ণঠাসা ‘ইরান। ইউক্রেনের যে বিমানে ই’রান মি’সাইল হা’মলা চা’লিয়েছিল, তার জন্য এ বার তে’হরানের কাছে ক্ষ’তিপূরণ দা’বি করা হল।

বৃহস্পতিবার লন্ডনে কানাডার দূতাবাসে একজোট হয়েছিলেন কানাডা, ইউক্রেন, সুইডেন, আফগানিস্তান এবং যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিরা। নি’হত যাত্রীদের প্রতি শো’ক প্রস্তাব জানিয়ে তারা একটি বৈঠক করেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন