স্বামী বিয়ের ১৪ দিন পর বুঝলেন স্ত্রী আসলে ‘পুরুষ’

প্রকাশিত: জানু ১৬, ২০২০ / ১২:৩১অপরাহ্ণ
স্বামী বিয়ের ১৪ দিন পর বুঝলেন স্ত্রী আসলে ‘পুরুষ’

বিয়ের ১৪ দিন পার হয়ে গেলেও স্ত্রীর ঘনিষ্ঠ হতে পারেন নি স্বামী। কারণ, বাসর রাত থেকেই কনে বলে আসছেন, তার পিরিয়ড চলছে। এদিকে স্ত্রী সুস্থ হওয়ার আশায় দিন কাটছে স্বামীর।

এরই মধ্যে প্রতিবেশিরা স্বামীকে ডেকে বলেন, রাতের বেলা তার স্ত্রী দেয়াল টপকে প্রতিবেশির বাড়িতে ঢুকে টেলিভিশন এবং কিছু কাপড় চুরি করে এনেছেন।

কিন্তু দুই ঘরে চুরির সামগ্রী না পেয়ে সদ্য বিবাহিত স্ত্রীকে সন্দেহ করেন নি স্বামী। এদিকে বিচার না পেয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন প্রতিবেশিরা।

পুলিশ এসে স্ত্রীকে ধরে নিয়ে যায়। ওই সময় হিজাব ও বোরকা পরে ছিলেন ওই নারী। থানায় নিয়ে গিয়ে নারী পুলিশ দেহ তল্লাশী শুরু করে। আর ওই সময় তারা বুঝতে পারেন, পুলিশ নারী হিসেবে যাকে ধরে এনেছেন, তিনি আসলে পুরুষ।

প্রতারণার শিকার ওই ইমামের নাম শেখ মোহাম্মদ মুতুম্বা (২৭)। তিনি স্থানীয় একটি মসজিদে চার বছর ধরে ইমামতি করে আসছেন। ঘটনাটি ঘটেছে আফ্রিকার দেশ উগান্ডায়।

ইমামের ভাষ্য, আমি তাকে নারী ভেবে ডিসেম্বরে বিয়ে করি। ওই ব্যক্তি তার নাম সাবুল্লাহ নাবুকিরা বলে পরিচয় দেন। যেহেতু তিনি তার সঙ্গে একান্তে মিলিত হতে পারেননি এবং বিভিন্ন অজুহাত দেখাতেন, তাই তিনি বুঝতেই পারেননি যে, তিনি আসলে একজন পুরুষ মানুষ।

ছদ্মবেশী ওই ব্যক্তি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের কাছে আসল পরিচয় জানিয়ে বলেছেন, তিনি ইমামের অর্থকড়ি চুরি করতেই মেয়ে সেজে বিয়ে করেন।

ইমামের ঘনিষ্ঠজনরা বলছেন, নাবুকিরা সবসময় হিজাব পরে থাকায় তারা প্রতারিত হয়েছেন এবং তাকে চিনতে পারেননি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন