অজয়-কাজল বয়ে চলছেন দুই সন্তানের মৃ’ত্যু কষ্ট

প্রকাশিত: জানু ১৪, ২০২০ / ০৩:০০অপরাহ্ণ
অজয়-কাজল বয়ে চলছেন দুই সন্তানের মৃ’ত্যু কষ্ট

বলিউডের অন্যতম সেরা দম্পতি কাজল ও অজয় দেবগন। ২০ বছর ধরে একসঙ্গে পথ চলছেন তারা। তাদের সম্পর্কের রসায়ন এখনও বেশ মজবুত।’

বহু বছর পর আবারও জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন এই তারকা দম্পতি। এই জুটির ব্যাকরণ এবার রিল লাইফে দেখার অপেক্ষায় মুখিয়ে রয়েছেন দর্শকরা। ১০ জানুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে তাদের নতুন ছবি ‘তানাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র’ । ছবির নাম ভূমিকায় রয়েছেন অজয়। আর তানাজির স্ত্রীর চরিত্রে দেখা যাবে কাজলকে ৷

জীবনের এমন একটা গুরুত্বপূর্ণ ছবির মুক্তির আগে অজয়ের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আবেগঘন কথা বলেছেন কাজল। দীর্ঘ একটি পোস্টে কাজল লিখেছেন, ২৫ বছর আগে তাদের দেখা হয়েছিল ‘হলচাল’-এর সেটে। তারপর কীভাবে অজয়ের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব হয়, কীভাবে সম্পর্ক গড়ে ওঠে সবটাই খোলসা করেছেন তিনি ৷

জানা যায়, অজয়ের বাড়ি ছিল জুহুতে, আর কাজল থাকলেন দক্ষিণ বম্বেতে। প্রায় একসঙ্গে চলাচল করতেন তারা। ফলে দু’জনের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল গাড়িতে। কখনও কেউ কাউকে প্রপোজ করেননি।

এক সময় নিজেরা বুঝতে পারেন সম্পর্কের পরিণতি দেয়ার সময় হয়েছে। বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন দুজন। কিন্তু বেঁকে বসেছিলেন কাজলের বাবা। মেয়ের সঙ্গে ৪ দিন কথা বলেননি তিনি। কিন্তু মেয়েও নাছোড়বান্দা। অবশেষে বিয়ে হলো।

সংবাদমাধ্যমের চোখে ধূলো দিয়েছিলেন অন্য জায়গার ঠিকানা দিয়ে। প্রথমে পাঞ্জাবী, পরে মারাঠি মতে বিয়ে হয় অজয়-কাজলের। তবে বিবাহ বাসরে ঘটে মজার ঘটনা। এতো লম্বা বিয়ে চলছে দেখে অজয় পুরোহিতকে বারবার বলেছিলেন তাড়াতাড়ি সাত পাক শেষ করতে। এমনকি এর জন্য পণ্ডিতকে ঘুষও দিতে চান অজয়।

কাজলের বরাবরের ইচ্ছে ছিল লম্বা হনিমুনের। প্রথমে সিডনি তারপর হাওয়াই, লস অ্যাঞ্জেলস। ৫ সপ্তাহ হানিমুন শেষে ফেরার নাম করেননি কাজল। এক সময় সন্তান নেয়ার কথা ভাবতে শুরু করেন অজয়-কাজল।

‘কাভি খুশি কাভি গম’র শুটিং এর সময় প্রেগন্যান্ট হন কাজল। কিন্তু যেদিন ‘কাভি খুশি কাভি গম’ মুক্তি পায়। সে সময় হাসপাতালের বেডে নায়িকা। পরে গর্ভাবস্থায় সন্তান মারা যায়। পরবর্তীতে আরও একটি সন্তান একইভাবে মারা যায়। সেই কষ্ট আজও বয়ে চলছেন এই দম্পতি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন