শতবর্ষী মাকে রাস্তায় ফেলে গেলো সন্তানরা, ১৪ দিন পর ঠাঁই হলো হাসপাতালে!

প্রকাশিত: জানু ১৪, ২০২০ / ১২:২৭পূর্বাহ্ণ
শতবর্ষী মাকে রাস্তায় ফেলে গেলো সন্তানরা, ১৪ দিন পর ঠাঁই হলো হাসপাতালে!

১৪ দিন খোলা আকাশের নিচে পড়ে থাকার পর অবশেষে পুলিশের সহায়তায় শতবর্ষী বৃদ্ধার ঠাঁই হলো গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে।২৯ ডিসেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর রেল স্টেশনের ২ নম্বর প্লাটফর্মের পাশের একটি তেঁতুল গাছের নীচে ওই বৃদ্ধাকে ফেলে রেখে যায় ২ ব্যক্তি।

স্থানীয়দের ধারণা বৃদ্ধার পরিবারের সদস্যরাই একটি ভ্যানে করে তাকে গাছের নীচে ফেলে রেখে যায়। তবে বৃদ্ধা এতোটাই দুর্বল যে, তিনি তার নাম-পরিচয়ও জানাতে পারেননি।তার শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত দুর্বল হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তির পর চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সিরাজুল নামের এক ব্যবসায়ী জানান, তিনি ওই বৃদ্ধাকে একটি ভ্যানে করে ২ জনকে নিয়ে আসতে দেখেন।তার ধারণা তারা ট্রেনে কোথাও যাবে।কিন্তু গভীর রাতে ওই বৃদ্ধাকে একা স্টেশনের তেঁতুল গাছের নীচে দেখতে পেয়ে তার ঠিকানা জানার চেষ্টা করেও জানা যায়নি।

তার পর থেকে তিনি ও স্থানীয়রা তাকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করে এসেছেন। বিষয়টি স্থানীয়দের জানানোর পর রোববার (১২ জানুয়ারি) রাতে রহনপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এদিকে সাংবাদিকদের মাধ্যমে খবর পাওয়ার পর রহনপুর রেল স্টেশনে ফেলে যাওয়া শতবর্ষী বৃদ্ধার দায়িত্ব নেন রহনপুর তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আব্দুল মালেক, এএসআই তৌহিদুল ইসলাম ও পুলিশের বিশেষ শাখা ডিএসবির নুরুন্নবী।

তারা জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে প্রচণ্ড শীতে জবুথবু সেই বৃদ্ধকে রোববার রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধারের সময় দেখা যায় তিনি ঠাণ্ডায় ঠকঠক করে কাঁপছেন।

অন্যদিকে এ খবর পেয়ে রহনপুর পৌর মেয়র তারিখ আহম্মদ হাসপাতালে গিয়ে ওই বৃদ্ধাকে একটি কম্বল দিয়ে তাকে সহায়তার আশ্বাস দেন।

এ ব্যাপারে পৌর মেয়র তারিখ আহম্মদ জানান, ওই বৃদ্ধার নাম-ঠিকানা এখনও জানা যায়নি।এ ব্যাপারে পুলিশ ও তিনি পৃথক পৃথকভাবে অনুসন্ধান চালাচ্ছেন।সেইসঙ্গে হাসপাতালে তাকে সুস্থ করার জন্য চিকিৎসা চলছে।

জানা যায়, ১৪ দিন আগে ওই বৃদ্ধাকে রহনপুর রেল স্টেশন চত্বরের ফেলে পালিয়ে যায় ২ যুবক।সেসময় তার গায়ে পুরোনো একটি উলের সোয়েটার ও সঙ্গে একটি কম্বল ছিল।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন