উত্তরপ্রদেশে বি’তর্কিত নাগরিকত্ব আইন চালু করল যোগী আদিত্যনাথ

প্রকাশিত: জানু ১৩, ২০২০ / ১০:৩১অপরাহ্ণ
উত্তরপ্রদেশে বি’তর্কিত নাগরিকত্ব আইন চালু করল যোগী আদিত্যনাথ

বি’ত’র্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) বাস্তবায়নের কাজ প্রথম শুরু করেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশ রাজ্য সরকার।

সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের একটি তালিকা পাঠিয়েছে উত্তরপ্রদেশের ক’ট্ট’র হিন্দুত্ববাদী মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সরকার।

১৯ জেলায় বসবাসকারী এসব অভিবাসীর সংখ্যা প্রায় ৪০ হাজার। এর মধ্যে বেশির ভাগই হিন্দু সম্প্রদায়ের বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো ওই রিপোর্টে অভিবাসীদের ব্যক্তিগত বিষয়েও বিস্তারিত বলা হয়েছে। বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের যেসব অভিবাসী সংশ্লিষ্ট এলাকায় বসবাস করছেন, তাদেরকে শনাক্ত করে একটি তালিকা সরকারের কাছে জমা দিতে সব জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে গত সপ্তাহে নির্দেশ দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এ নির্দেশনার পর ডাটা সম্পন্ন করে দেখা যায়, উত্তরপ্রদেশের ১৯টি জেলা আগ্রা, রায় বেরেলি, শাহারানপুর, গোরকপুর, আলীগড়, রামপুর, মুজাফফরনগর, হাপুর, মথুরা, কানপুর, প্রতাপগড়, বারানসি, আমেথি, ঝাঁসি, বাহরাইচ, লক্ষ্মীপুর খেরি, লক্ষ্মৌ, মিরাট ও পিলিভিটে অমুসলিম প্রায় ৪০ হাজার অ’বৈ’ধ অ’ভি’বাসী বসবাস করছেন।

এর মধ্যে শুধু পিলিভিটেই বসবাস করছেন ৩০ হাজার থেকে ৩৫ হাজার অভিবাসী। এসব ব্যক্তির অনেকের বিস্তারিত তথ্য সংবলিত রিপোর্ট জমা দেয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এবং মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসব পরিবার বিভিন্ন পরিস্থিতির কারণে পাকিস্তান ও বাংলাদেশ ছেড়ে ভারতে এসে থাকতে বাধ্য হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন