পেটে লা’থি মে’রে ভারতীয় ‘অভিনেত্রীকে পুলিশ বলল পাকিস্তানে চলে যাও’

প্রকাশিত: জানু ৭, ২০২০ / ১০:৩৬অপরাহ্ণ
পেটে লা’থি মে’রে ভারতীয় ‘অভিনেত্রীকে পুলিশ বলল পাকিস্তানে চলে যাও’

১৯ দিন কারাভোগের পর জা’মি’নে মুক্তি পেয়েছেন ভারতীয় অভিনেত্রী তথা সমাজকর্মী সাদাফ জাফর। মঙ্গলবার জা’মি’নে মুক্তি পেয়ে দেশটির উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের পুলিশের বি’রু’দ্ধে অ’ত্যা’চারের অ’ভি’যোগ তুলেন তিনি।

এর আগে, গত ১৯ ডিসেম্বর তিনি লখনউয়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে বিক্ষোভ করতে গেলে গ্রে’প্তা’র হন সাদাফ জাফর।

জেল থেকে মুক্তি পেয়ে সেদিনের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরলেন সাদাফ। তিনি জানান, ‘পুলিশ আমাকে গা’লি’গা’লাজ করছিল। আমাকে প্রথমে একজন নারী পুলিশকর্মী চ’ড় মা’রেন। তারপর মা’রেন এক পুরুষ অফিসার। ওই পুরুষ অফিসার নিজেকে ইন্সপেক্টর জেনারেল পদমর্যাদার অফিসার বলে দাবি করেছিলেন। তিনিই আমার পেটে লা’থি মারেন এবং বলেন পাকিস্তানে চলে যাও।’

তিনি দাবি করেন, ‘হযরতগঞ্জ পুলিশ স্টেশনের জেল হেফাজতে থাকাকালীন কেউ আমার সঙ্গে দেখা করতে এলে তাকে আ’ট’কে রাখা হত। মনে হতো, আমি যেন ব্ল্যাক হোলের মধ্যে রয়েছি। জেলের মধ্যে থাকাকালীন এই ঠাণ্ডাতেও আমাকে কম্বল বা খাবার দেওয়া হয়নি।’

তিনি আরও দাবি করেন, নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ দেখাতে গেলে বহু নিরপরাধ মানুষকে গ্রে’প্তা’র করে যোগী আদিত্যনাথের পুলিশ।

গত সপ্তাহেই জা’মি’ন পেয়েছেন সাদাফ। তার আইনজীবী হরজৌত সিংহ বলছেন, ‘সাদাফকে স’হিং’সতা ছড়ানোর মিথ্যা অ’ভি’যোগে ফাঁ’সি’য়ে দেওয়া হয়েছিল। তার সম্পর্কে লখনউ পুলিশ আদালতকে জানিয়েছে, ‘তার বি’রু’দ্ধে অ’গ্নি’সং’যোগ বা সহিংসতা ছড়ানোর কোনো প্রমাণ এখনও পর্যন্ত মেলেনি দাবি করেন আইনজীবী হরজৌত সিংহ।’

ওই দিন নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ ফেসবুক লাইভে তুলে ধরছিলেন বি’ক্ষো’ভে অংশগ্রহণকারী সাদাফ জাফর। পরে পুলিশ তাকে গ্রে’ফ’তা’র করে। সদাফ জাফরের গ্রে’প্তা’রের ঘটনায় সারা ভারতে বি’ক্ষো’ভ ছড়িয়ে পড়ে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন