বিএনপি পরাজয় নিশ্চিত জেনেই ইভিএম নিয়ে বিষোদ্গার করছে

প্রকাশিত: জানু ৭, ২০২০ / ০২:০৯পূর্বাহ্ণ
বিএনপি পরাজয় নিশ্চিত জেনেই ইভিএম নিয়ে বিষোদ্গার করছে

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা সিটি নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনে ইভিএম নিয়ে বিষোদ্গার করছে। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য তারা আজেবাজে বক্তব্য দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

সোমবার দুপুরে সাভার উপজেলা পরিষদ মাঠে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল, শুকনো খাবার, শিশুখাদ্য ও বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ইভিএম নিয়ে বিএনপি অপপ্রচার চালাচ্ছে। ইভিএমে ভোট কারচুপি হবে, জালিয়াতি হবে ইত্যাদি কথাবার্তা বলছে। অথচ অতীতে ইভিএম পদ্ধতির নির্বাচনে তারাই বেশি জয়লাভ করেছে।

আসলে তারা আধুনিক প্রযুক্তির বিরুদ্ধে। ডিজিটাল ভোট পদ্ধতি তথা ডিজিটাল বাংলাদেশ তারা চায় না বলেই এ ধরনের অভি’যোগ আনছে।’

তিনি বলেন, ‘সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন। নির্বাচনে দলের নেতাকর্মীদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট চাইতে বলেছেন। আমাদের খারাপ উদ্দেশ্য থাকলে জনগণের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছি কেন? আমরা অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট চাই।

নিরপেক্ষ নির্বাচন করার জন্য আমরা নির্বাচন কমিশনকে সব ধরনের সহযোগিতা করতে চাই।’ মন্ত্রী বলেন, ‘আমি ঢাকাবাসীকে বলব, আপনারা যাকে খুশি তাকে ভোট দেবেন। আমরা সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন চাই। হারি জিতি নাহি লাজ। কারণ এই নির্বাচন স্থানীয় সরকারের।

এখানে হেরে গেলে আমাদের ওপর আকাশ ভেঙে পড়বে না। জনগণের ভোট যাতে তারা ইচ্ছে মতো দিতে পারে, সেই ব্যবস্থা আমরা করেছি। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচনের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রেখে যেতে চাই।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের সাহায্য করবেন। নৌকায় ভোট দিলে দুস্থ মানুষেরা কষ্ট পাবে না, উন্নয়ন হবে। সাধারণ মানুষের উন্নতি হবে, তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে। শেখ হাসিনার সরকার নিজেদের পকেটের উন্নয়ন চায় না। মন্ত্রী-এমপিদের পকেটের উন্নয়ন নয়, জনগণের ভাগ্যের উন্নয়ন করতে চায়। সে কারণেই আমরা জনগণের সমর্থন চাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই শীতে একজন মানুষও যাতে কষ্ট না পায় এবং কেউ যেন মৃ’ত্যুবরণ না করে, সেজন্য আমরা দলীয়ভাবে শীতবস্ত্র বিতরণ শুরু করেছি। সরকার ইতিমধ্যে ৪০ লাখ কম্বল ও ২ কোটি নগদ অর্থ, শিশুদের জন্য শীতবস্ত্র ও শুকনো খাবার বিতরণ করেছে। শিশু ও বয়স্কসহ কোনো মানুষ যাতে শীতে কষ্ট না পায়, সে চেষ্টাই চলছে।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন