১২ বছরের বাদাম বিক্রেতার টাকাও আমাদের দেশে ছিনতায় হয়!

প্রকাশিত: জানু ৫, ২০২০ / ০১:৫৯পূর্বাহ্ণ
১২ বছরের বাদাম বিক্রেতার টাকাও আমাদের দেশে ছিনতায় হয়!

বাড়িতে মা অ’সু্স্থ্য, ছোট দুই ভাইসহ পরিবারে বড় হওয়াই সব দায়িত্ব তার উপরে। মায়ের ও’ষুধের টাকা ও ছোট দুই ভাইকে একমুঠো খাবার দেওয়ার জন্য হাতিঝিলে এই কনকনে শীতের মধ্যে প্রতিদিনের মত গত কালও বাদাম বিক্রি করছিল এই ১৩ বছরের বয়েসের ছেলেটা।

এর মধ্যে দুই লোক ওর থেকে ১০ টাকার বাদাম নিয়ে ৫০০ টাকার নোট দেন । ছেলেটার কাছে থাকা খুচরা টাকাগুলো বের করার সাথে সাথে ছেলেকে মে’রে সব টাকা নিয়ে উধাও হয় সেই দুই লোক।

ছেলাটার চোখে যেন অন্ধাকার নেমে আসে। মার জন্য ও’ষুধ নিবে কি দিয়ে আবার ছোট ভাইদের খাওয়াবে কি।

এসব ভেবে ভেবে কান্না শুরু করলে। পাশের চায়ের দোকানে বসে থাকা লোক গুলো হঠাৎ করে কান্নার শব্দ শুনে জিজ্ঞাস করলে কা’ন্নার কারণ জানতে পারে।।

তার ঘটনা শুনে আশে পাশের সবাই মিলে প্রায় ৫০০ টাকা ওকে দেন। ছেলেটার চোখে বন্যা বয়ে গেল। সে তার মায়ের জন্য ও’ষুধ নিতে পারবে ও তার ছোট দুই ভাইকে খাওয়াতে পারবে।

আমাদের সমাজের মানুষ কত নিচ হতে পারে একবার ভেবে দেখুন! সামান্য কয়টা টাকা তাও আবর এরকম ছেলের কাছ থেকে নিতে হয়।

এই সামান্য টাকায় ছেলেটার একটা দিন আনন্দে চলে যাবে। আর সেই একদিনের আনন্দ আমরা এক মুহূর্তেই শেষ করে দিতে পারি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন