আরো আগেই সোলেইমানিকে শেষ করে দেয়া উচিত ছিল: ট্রাম্প

প্রকাশিত: জানু ৪, ২০২০ / ০১:৩০পূর্বাহ্ণ
আরো আগেই সোলেইমানিকে শেষ করে দেয়া উচিত ছিল: ট্রাম্প

ইরানের কুদস বাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে তার নিজ দেশেই মানুষ হ’ত্যার জন্য দায়ী করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তাকে আরো আগেই নি’শ্চিহ্ন করা উচিত ছিল।

শুক্রবার ভোরে ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হা’ম’লায় মেজর জেনারেল কাসেম সোলেইমানি নি’হ’ত হন।

বিবিসি ও আলজাজিরা জানায়, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে সোলেইমানিকে হ’ত্যা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পেন্টাগন ও হোয়াইট হাউস।

এরপর নিজের ফেইসবুকে দেওয়া স্ট্যাটাসে ডোনাল্ড ট্রম্প লেখেন, ‘জেনারেল কাসেম সোলেইমানি দীর্ঘ সময় ধরে হাজারো আমেরিকানকে হয় হত্যা করেছেন অথবা গুরুতর জ’খম করেছেন, তিনি আরো অনেক হ’ত্যা’র পরিকল্পনা করছিলেন…কিন্তু তার আগেই ধরা পড়ে গেলেন!

তিনি প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে লাখ লাখ মানুষ হ’ত্যার জন্য দায়ী, যার মধ্যে সম্প্রতি আন্দোলন করা তার নিজের দেশ ইরানের মানুষও রয়েছেন। ইরান কখনো এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে পারেনি। সোলেইমানি তার নিজ দেশেই ঘৃ’ণা ও আত;ঙ্কের কারণ।

বহির্বিশ্বের নেতারা যেভাবে বিশ্বাস করেন সেভাবে তারা (ইরানিরা) তাকে নেতা মনে করেন না। তাকে আরো অনেক বছর আগেই আমাদের নিশ্চিহ্ন করা উচিত ছিল!’

অপর এক স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ‘ইরান কখনো যু’দ্ধে জেতে না, তবে তারা কখনো সমঝোতায় হারে না!

আধাঘণ্টার ব্যবধানে তৃতীয় স্ট্যাটাসে ট্রাম্প লেখেন, যুক্তরাষ্ট্র ইরাককে বছরেরর পর বছর ধরে বিলিয়ন বিলিয়র ডলার দিয়ে আসছে।

তিনি লেখেন, ইরাকের জনগণ ইরান দ্বারা শাসিত ও নিয়ন্ত্রিত হতে চায় না, কিন্তু শেষ পর্যন্ত, এটা তাদেরই পছন্দের বিষয়। গত ১৫ বছর ধরে ইরান ইরাকের ওপর একের পর এক নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে, এবং ইরাকের জনগণ এতে খুশি নয়, এ পরিণতি কখনো ভালো হতে পারে না!

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন