মুশফিককে আউট করতে আলাদা কিছু করার চেষ্টা করেছিলেন মাহমুদ

প্রকাশিত: জানু ৩, ২০২০ / ০৮:৫৮অপরাহ্ণ
মুশফিককে আউট করতে আলাদা কিছু করার চেষ্টা করেছিলেন মাহমুদ

চলতি বিপিএলে তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে যারা প্রত্যাশার চেয়েও ভালো করছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হাসান মাহমুদ। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে বিপিএলের এবারের আসরের শুরু থেকেই দু’র্দান্ত বোলিং করছেন ২০ বছর বয়সী এ পেসার।

শুক্রবার তার গতির তা’ণ্ড’বে ল’ন্ড’ভ’ন্ড হয়ে যায় খুলনা টাইগার্সের ব্যাটিং লাইন আপ। ঢাকার বিপক্ষে ১৭৩ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৪৪ রানে প্রথম সারির ৪ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে বি’পদে পড়ে যায় খুলনা।

দলের বিপ’র্যয়ের দিনে বাড়তি দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। শেষ দিকে আস্কিং রান রেট বেড়ে গেলেও একের পর এক বাউন্ডারি হাঁ’কিয়ে দলকে জয়ের স্বপ্নে রাখেন মুশফিক।

শেষ দিকে জয়ের জন্য ১২ বলে খুলনার প্রয়োজন ছিল ৩৫ রান। ১৯তম ওভারে হাসান মাহমুদের করা প্রথম চার বলের মধ্যে একটি ছক্কা, এক চার আর একটি ডাবলে ১২ রান আদায় করে নেন মুশফিক।

শেষ ৮ বলে খুলনার প্রয়োজন ছিল ২২ রান। ১৯তম ওভারের পঞ্চম বলে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা (৩৩ বলে ৬টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৬৪ রান করা) মুশফিককে আউট করেন হাসান মাহমুদ। তার বোলিং নৈপূণ্যে শ্বা’স’রু’দ্ধকর ম্যাচে ১২ রানের জয় পায় ঢাকা।

খেলা শেষে হাসান মাহমুদ বলেন, মুশফিক ভাইকে বল করা আসলে বেশ কষ্টকর। উনি ৩৬০ ডিগ্রিতে খেলেন। তো ওনার জন্য পরিকল্পনা ছিল ওয়াইড ইয়র্কার মারা, যেজন্য ফিল্ডার অফসাইটে ৩টা বের করে দেয়া হয়েছিল। তারপর একটা স্লো-ফুলটসে উনি আউট হয়েছেন। ওনাকে আউট করতে আলাদা কিছু করার চেষ্টা করেছিলাম।

এদিন ৪ ওভারে ৩২ রানে ৪ উইকেট শিকার করা হাসান মাহমুদ জানান, পেস বোলারদের মধ্যে যারা জোরে বল করে যেমন- প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, মিচেল জনসন, মার্ক উড তাদের অনুসরণ করি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন