সড়কে একই পরিবারের চারজনসহ দুই জেলায় ১০ জনের প্রা’ণহা’নী

প্রকাশিত: ডিসে ২৪, ২০১৯ / ০৮:১২অপরাহ্ণ
সড়কে একই পরিবারের চারজনসহ দুই জেলায় ১০ জনের প্রা’ণহা’নী

কুষ্টিয়া ও নেত্রকোনায় পৃথক সড়ক দুর্ঘ’ট’নায় একই পরিবারের ৪ জনসহ মোট ১০ জন নি’হ’ত হয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকালে ভেড়ামারা উপজেলায় ট্রাক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সং’ঘ’র্ষে একই পরিবারের ৪ জনসহ ৫ জন নি’হ’ত হয়েছেন।

এর আগে সকালে মিরপুর উপজেলায় ট্রেনের ধাক্কায় স্যালো ইঞ্জিনচালিত ট্রলির চালক ও হেলপার নি’হ’ত হন।

এ ছাড়া নেত্রকোনার শ্যামগঞ্জ বিরিশিরি সড়কে ট্রাক ও অটোরিকশার মুখোমুখি সং’ঘ’র্ষে’ তিনজন নি’হ’ত হয়েছেন।

কুষ্টিয়া ও ভেড়ামারা প্রতিনিধি জানান, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ট্রাক ও সিএনজির সং’ঘ’র্ষে’ নারী ও শিশুসহ অন্ততপক্ষে ৫ জন নি’হ’ত হয়েছেন।

মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে ভেড়ামারা উপজেলায় কুষ্টিয়া-ঈশ্বরদী মহাসড়কের ভেড়ামারা পাওয়ার হাউস যাত্রীছাউনির সামনে ট্রাক-সিএনজির সং’ঘ’র্ষের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নি’হ’তরা হলেন- রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সরেরহাট গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে মেজবাউল ওরফে মাসুম (৩৫), তার স্ত্রী রুনা বেগম (২৬), মা মাহমুদা খাতুন (৫৫), ছেলে রুজভী (৯ মাস) ও সিএনজির ড্রাইভার মো. জামান (৩২)।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, বিকাল ৩টার দিকে একটি যাত্রীবাহী সিএনজি কুষ্টিয়া অভিমুখে যাওয়ার সময় বিপরীতমুখী দ্রুতগামী একটি ট্রাকের মুখোমুখি সং’ঘ’র্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সিএনজিচালক জামান নি’হ’ত হন।

আহত রুনা বেগম, রুজভীকে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে মা’রা যান। এ ছাড়া মা’রা’ত্ম’ক আ’হ’ত মেজবাউল ও তার মা মাহমুদা খাতুনকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃ’ত ঘোষণা করেন।

হাইওয়ে থানার ওসি জয়নুল আবেদিন জানান, ট্রাক ড্রাইভার ঘাতক ট্রাকটি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

অপরদিকে মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে খুলনা থেকে রাজশাহীগামী কপোতাক্ষ আন্তঃনগর ট্রেন মিরপুর উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের কাটদহচর রেল ক্রসিংয়ে একটি ইঞ্জিনচালিত ট্রলিকে ধা’ক্কা দেয়। ট্রেনের ধাক্কায় ট্রলিটি ছিটকে দুমড়ে-মুচ’ড়ে পড়ে।

এতে ওই ট্রলির চালক ছাতিয়ান ইউনিয়নের বেশিনগর গ্রামের আজগর আলীর ছেলে কাওছার (৩৫) ও ইস্কান্দার আলীর ছেলে হেলপার মহিবুল (৪০) ঘটনাস্থলেই মা’রা যান।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লা’শ দুটি উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছেন পোড়াদহ জিআরপি থানার ওসি জসিম উদ্দিন খন্দকার।

নেত্রকোনা ও দুর্গাপুর প্রতিনিধি জানান, নেত্রকোনার শ্যামগঞ্জ বিরিশিরি সড়কে ট্রাক ও অটোরিকশার মুখোমুখি সং’ঘ’র্ষে তিনজন নি’হ’ত হয়েছেন। মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে শ্যামগঞ্জ বিরিশিরি সড়কের উৎরাইল বাজার এলাকায় এ দুর্ঘ’ট’না ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে শ্যামগঞ্জ বিরিশিরি সড়কের উৎরাইল বাজার এলাকায় একটি বালুবাহী ট্রাক বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশার মুখোমুখি সং’ঘ’র্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই দুর্গাপুর উপজেলার বিশ্বনাথপুর গ্রামের নূর ইসলামের স্ত্রী সেলিমা খাতুন (৪০) নি’হ’ত হন।

এ ঘটনায় একই উপজেলার শিমুলতলী গ্রামের মৃ’ত ঈমাম আলীর ছেলে আবদুল কুদ্দুস (৪৫) ও একই উপজেলার ইদ্রপুর গ্রামের মৃ’ত আবদুল কুদ্দুসের ছেলে নুরু মিয়া (৪০) গুরুতর আ’হ’ত হন।

তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দু’জনকেই মৃ’ত ঘোষণা করেন।

দুর্গাপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘা’ত’ক ট্রাককে আ’ট’ক করা গেলেও ড্রাইভার পা’লিয়ে গেছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন