যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রী আ’গুনে পুড়ে মা’রল স্বামী

প্রকাশিত: ডিসে ২২, ২০১৯ / ১২:০৫পূর্বাহ্ণ
যৌতুক না দেয়ায় স্ত্রী আ’গুনে পুড়ে মা’রল স্বামী

নরসিংদীর মাধবদীতে যৌ’তুকের টাকা না দেয়ায় স্বামীর দেয়া আ’গু’নে পু’ড়ে স্ত্রীর মৃ’ত্যু হয়েছে। পাঁচদিন মৃ’ত্যু যন্ত্র’ণা’য় কা’তরিয়ে শনিবার ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃ’ত্যু হয়।

এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে ওই গৃহবধূর স্বামী বিপ্লব মিয়াকে গ্রে’ফ’তার করে মাধবদী থানা পুলিশ। নি’হ’ত খাদিজা আক্তার রুমা নরসিংদী সদর উপজেলার শিলমান্দী গ্রামের কাজল মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত ১৬ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরে যৌ’তু’কের টাকার জন্য স্বামীর দেয়া আ’গু’নে অ’গ্নি’দ’গ্ধ হন গৃহবধূ খাদিজা আক্তার রুমা। পরে তাকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অবস্থার অবনতি হলে খাদিজাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থার ৫ দিন পর শনিবার ভোরে তিনি মা’রা যান।

নিহত খাদিজার বাবা কাজল মিয়া জানান, প্রায় দেড় বছর আগে মেয়ে খাদিজাকে মাধবদীর গদাইরচরের দুলাল মিয়ার ছেলে বিপ্লবের সঙ্গে বিয়ে দেয়া হয়। তাদের একটি ৭ মাসের কন্যা সন্তান রয়েছে।

বিয়ের পর থেকে যৌ’তু’কের ৩ লাখ টাকা জন্য বিপ্লব প্রায় সময় খাদিজার ওপর নি’র্যা’ত’ন চালাত। একপর্যায়ে টাকা দিতে না পারায় খাদিজাকে হ’ত্যা’র উদ্দেশে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে শরীরে কেরোসিন ঢেলে আ’গু’ন ধরিয়ে দেয়া হয়।

মাধবদী থানার ডিউটি অফিসার এসআই দিদারুল আলম জানান, নি’হ’তের বাবা কাজল মিয়া বাদী হয়ে মাধবদী থানায় নারী ও শিশু নি’র্যা’তন দ’মন আইনে মা’ম’লা দায়ের করেন। এ ঘটনায় স্বামী বিপ্লবকে গ্রে’ফ’তার করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন