বিএনপি নেতা-কর্মীরা ওসিকে পেটাল

প্রকাশিত: ডিসে ১৬, ২০১৯ / ০৮:১৯অপরাহ্ণ
বিএনপি নেতা-কর্মীরা ওসিকে পেটাল

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির র‌্যালিতে সদর থানা পুলিশের পরিদর্শক জয়নাল আবেদীনকে লাঞ্ছিত করার ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার সকাল শহরের দুই নম্বর রেলগেট এলাকায় বিএনপি র‌্যালি বের করলে এই ঘটনা ঘটে। এই সময় ওই পুলিশ পরিদর্শকের ইউনিফর্ম ধরে টানাটানি ও তাকে মারধর করে বিএনপির কর্মীরা। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠি চার্জ করে র‌্যালিটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

ঘটনার পর বিএনপির তিন নেতাকর্মীকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রাকিব, কামরুল ও মামুন।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রজন্ম ৭১ নামের বিএনপির একটি অঙ্গ সংগঠন র‌্যালি বের করে। সব ধরনের রাজনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ রাখতে আদালতের স্থগিতাদেশে থাকা সত্ত্বেও নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান র‌্যালির নেতৃত্ব দেন।

র‌্যালিটির একাংশে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা জিয়ার নেতৃত্বে একটি মিছিল ২ নম্বর রেলগেট এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয়। এই সময় সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন তাদের ব্যানার কেড়ে নিলে তার ওপর চড়াও হয় মিছিলকারীরা।

পরে তারা ধাওয়া করে ইন্সপেক্টর জয়নাল আবেদীনকে লাঞ্ছিত করে ও পোশাক ধরে টানাটানি করতে থাকে। তার সাথে বিএনপির নেতা কর্মীদের ধস্তাধস্তিও হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে মিছিলকারীদের লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দিয়ে ইন্সপেক্টর জয়নাল আবেদীনকে রোষানল থেকে উদ্ধার করে। এর কিছু সময় পরেই শহরের মিশনপাড়া এলাকা থেকে বিএনপি নেতা মনিরুল আলম সজলের নেতৃত্বে আরেকটি মিছিল বের হলে পুলিশ তাদের ধাওয়া দেয়। এ সময় মিছিল থেকে ৩ জনকে আটক করে পুলিশ।

বিষয়টি স্বীকার করে সদর মডেল থানার পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন বলেন, বিএনপির মিছিল থেকে উচ্ছৃঙ্খল কর্মীরা পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এসময় তাদের লাঠি চার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান জানান, বিএনপির মিছিল থেকে পুলিশ কে লক্ষ্য করে উসকানিমূলক স্লোগান দিলে পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

তিনি জানান, পুলিশের পরিদর্শক জয়নাল আবেদীনকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় বিএনপির তিন নেতা-কর্মীকে আটক করা হয়েছে। তারা নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের সমর্থক বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি আসাদুজ্জামান।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন