এবার বিপিএলে ফিক্সিং বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন পাপন

প্রকাশিত: ডিসে ১৪, ২০১৯ / ১০:২৪অপরাহ্ণ
এবার বিপিএলে ফিক্সিং বিতর্ক নিয়ে মুখ খুললেন পাপন

সিলেট থান্ডার্সের ক্যারিবীয় পেসার ক্রিশমার স্যান্টোকির সন্দেহজনক আচরণ নিয়ে ফিক্সিংয়ের প্রশ্ন উঠেছে। বিপিএলে সেই ফিক্সিং-বিতর্ক নিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, এখানে আমাদের কিছু করার নেই।

শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি বলেন, যে নো বল হয়েছে, সেটা অনেক বড়। নো বল খুবই সাধারণ ঘটনা। এর মধ্যে অন্য কিছু আছে কিনা সেটা আমাদের দেখার কথা না। সাধারণত এটা আইসিসির এন্টি করাপশন ইউনিট দেখে।

বঙ্গবন্ধু বিপিএলে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দলের সঙ্গে একজন করে আকসু কর্মকর্তা রয়েছে জানিয়ে পাপন বলেন, এবার প্রত্যেক দলের সঙ্গে এন্টি করাপশন ইউনিটের লোক রয়েছে। যদি কোনো সমস্যা হয় তারা দেখছে। এটা নিয়ে আমাদের কিছু কোনো কারণ নেই।

গত বুধবার বিপিএলের উদ্বোধনী দিনে মিরপুরে মুখোমুখি হয় সিলেট থান্ডার ও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সেই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৬২ রান করে সিলেট। জবাবে ১ ওভার ও ৫ উইকেট হাতে রেখে ম্যাচ জিতে নেয় চট্টগ্রাম।

চট্টগ্রামের ব্যাটিং ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বল করতে আসেন সান্তোকি। সেই মুহূর্তে ক্রিজে ছিলেন আবিষ্কা ফার্নান্দো। সেই ওভারের তৃতীয় বলটা ওভার দ্য উইকেটে করেন সান্তোকি। বল ছুড়েন ফুলটস। ব্যাটসম্যানের লেগ সাইডের অনেক বাইরে পড়ে তা বেরিয়ে যায়। বামপ্রান্তে ঝাঁপিয়ে বলটি গ্লাভসবন্দি করেন উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ মিঠুন। ফিল্ড আম্পায়ার ডাকেন ওয়াইড।

এতে রীতিমতো বিস্মিত হয়ে যান ধারাভাষ্যকাররা। তাদের কথায়, টেস্টেও এটা ওয়াইড ডাকতে হবে। এর ২ বল পরই সবাইকে অবাক করে একটি নো বল করেন সান্তোকি। ওই সময় তার সামনের পা পপিং ক্রিজ থেকে প্রায় ১ মিটার বাইরে ছিল।

টিভিতে এই বল দেখার পরই ধারাভাষ্যকার তার সহকারীকে বলেন, বলটা আরো একবার দেখুন,অবিশ্বাস্য।অপর ধারাভাষ্যকারও বলেন, বিশ্বাসই হচ্ছে না। কীভাবে একজন দাগের বাইরে এতটা এগিয়ে যেতে পারেন!

স্বভাবতই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় উঠেছে। অনেকে বলছেন, এটা কি সত্যি? কেউ কেউ বলছেন, এরকম অস্বাভাবিক ওয়াইড ও নো বল করার কারণ জানাক সান্তোকি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন