খালেদার জামিন শুনানি ঘিরে আদালতপাড়ায় কঠোর নিরাপত্তা

প্রকাশিত: ডিসে ১২, ২০১৯ / ১১:০০পূর্বাহ্ণ
খালেদার জামিন শুনানি ঘিরে আদালতপাড়ায় কঠোর নিরাপত্তা

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হবে আজ। শুনানিকে কেন্দ্র করে পুরো সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় দেখা যায়, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের তিনটি প্রবেশপথ, আশপাশ ও আদালত ভবন এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া আর্চওয়ে ও মেটাল ডিরেক্টর দিয়ে তল্লাশির পর আইনজীবী, বিচারপ্রার্থী, সাংবাদিকসহ সংশ্নিষ্টদের আদালতে প্রবেশ করানো হয়। পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় কর্তব্যরত ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাদিয়া ফারজানা বলেন, আজ জামিন শুনানিকে ঘিরে সুপ্রিম কোর্ট এলাকায় বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অপরিচিত কাউকে পরিচয়পত্র ছাড়া ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি হবে। জামিন শুনানির আবেদনটি আপিল বিভাগের ওয়েবসাইটে আজকের কার্যতালিকায় ১২ নম্বরে রাখা হয়েছে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের পর গত ২৮ নভেম্বর প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ খালেদা জিয়ার সর্বশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থার মেডিকেল বোর্ডের প্রতিবেদন ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু ওই দিন প্রতিবেদন দাখিল না করায় শুনানিকে কেন্দ্র করে প্রধান বিচারপতির আদালতে প্রায় তিন ঘণ্টা ‘নজিরবিহীন’ হট্টগোল হয়।

খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা পর্যালোচনা শেষে সুপারিশসংবলিত প্রতিবেদন বুধবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে সুপ্রিম কোর্টের সংশ্নিষ্ট শাখায় পাঠানো হয়। তবে এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন থেকে সাংবাদিকদের কাছে কেউ কোনো কিছু বলতে রাজি হননি। অধ্যাপক জিলন মিঞার নেতৃত্বে সাত সদস্যের মেডিকেল বোর্ড এই প্রতিবেদন দিয়েছে বলে জানান উপাচার্য।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন