ক্রিকেটে অভিনব এক পদ্ধতি চালু করছে আইসিসি

প্রকাশিত: ডিসে ৬, ২০১৯ / ০৫:৩৮অপরাহ্ণ
ক্রিকেটে  অভিনব এক পদ্ধতি চালু করছে আইসিসি

ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে অভিনব এক পদ্ধতি চালু করছে আইসিসি। বোলারদের ফ্রন্ট ফুট নো বলের ক্ষেত্রে অনফিল্ড আম্পায়াররা নন, সিদ্ধান্ত নেবেন থার্ড আম্পায়ার।

শুক্রবার সন্ধ্যায় হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে ৩ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হবে ভারত-উইন্ডিজ। ম্যাচটি থেকেই পরীক্ষামূলকভাবে এই নিয়ম চালু করছে আইসিসি।

বৃহস্পতিবার বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা জানায়, নিরীক্ষামূলকভাবে এই পদ্ধতি চালু হচ্ছে। টেলিভিশনে প্রতিটি বলের ওপর নজর রাখবেন তৃতীয় আম্পায়ার। বোলারদের ফ্রন্ট ফুট নো বল হচ্ছে কি না-তা দেখবেন তিনি।

এই নো বলের নিয়ম হলো, বল ডেলিভেরির সময় কিঞ্চিত অংশ হলেও বোলারের সামনের পা পপিং ক্রিজের লাইনের ভেতরে থাকতে হবে। যদি না থাকে তা হলে সেটা নো বল বলে গণ্য হবে। টেলিভিশনে সেটাই দেখবেন তৃতীয় আম্পায়ার।

যদি দেখা যায় বোলার তেমনটা করছেন, তবে কী হবে? এর জবাবও দিয়েছে আইসিসি। তারা পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছে, যদি থার্ড আম্পায়ার দেখেন ফ্রন্ট ফুট নো বল হয়েছে, তা হলে তিনি সঙ্গে সঙ্গে সেটা মাঠের আম্পায়ারকে জানাবেন। তার পরামর্শ মোতাবেক নো বল ডাকবেন তারা। তৃতীয় আম্পায়ারের অনুমতি ছাড়া নো বল দিতে পারবেন না দায়িত্বরত ফিল্ড আম্পায়াররা।

চলতি বছরের আগস্টে এক সভায় সিদ্ধান্ত হয়, নো বল ডাকার ক্ষেত্রে থার্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে পরিগণিত হবে। আইসিসির ক্রিকেট কমিটি সুপারিশ করে, যত বেশি সম্ভব সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এই নিয়ম ব্যবহার করতে হবে। এবার বিশ্ব ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাও দেখতে চায়, এই পদ্ধতি চালু করলে ক্রিকেট উপকৃত হয় কি না।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন