তিন নায়ক নিলেন র‌্যাবের প্রশিক্ষণ

প্রকাশিত: ডিসে ৬, ২০১৯ / ০৫:৩২অপরাহ্ণ
তিন নায়ক নিলেন র‌্যাবের প্রশিক্ষণ

‘ঢাকা অ্যাটাক’-খ্যাত নির্মাতা দীপঙ্কর দীপনের নতুন ছবি ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এর শুটিং আর কয়েকদিন পরই শুরু হবে। তার আগে বড়পর্দায় নিজেদের অভিনয় যথাযথভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য সম্প্রতি গাজীপুরে র‌্যাব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন চলচ্চিত্রের তিন নায়ক।

তারা হচ্ছেন চিত্রনায়ক রিয়াজ, সিয়াম ও রোশান। চিত্রনায়ক রিয়াজ বলেন, এটি একটি ক্যাম্প ট্রেনিং ছিল। একটা বড় ট্রেনিংকে ছোট করে করানো হয়েছে। কিভাবে পিস্তল ধরতে হবে, স্যালুট দিতে হবে, এমনকি র‌্যাবের কিছু লিগ্যাল বাইন্ডিংয়ের বিষয়ে কোর্স করানো হয়েছে। বাস্তবে র‌্যাব যা করে সেটাই আমাদের ট্রেনিংয়ে দেখানো হয়েছে। এ সিনেমায় ব্যাটালিয়ান কমান্ডার চরিত্রে দর্শকরা আমাকে দেখতে পাবেন।

চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদ বলেন, দুই ধরণের প্রশিক্ষণ নিয়েছি আমরা। ভালো লেগেছে এমন কাজের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে। নির্মাতা দীপংকর দীপন জানান, গাজীপুর র‌্যাব প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কিছুদিন আগে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন রিয়াজ, সিয়াম ও রোশান। র‌্যাবে যোগদানের শুরুতে যে বেসিক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় তাদেরও একই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

পোশাক, বুট পরিধান, জঙ্গলে অভিযান, অস্ত্র চালানো, কারিগরি কৌশল, অপরাধী ধরা-সবকিছুই শেখানো হয়েছে বলে জানান চিত্রনায়ক রোশান। এদিকে র‌্যাব সদস্যদের বেসিক প্রশিক্ষণ নিতে হয় সাতদিনে। কিন্তু রিয়াজ, রোশান, সিয়ামের লেগেছে তিনদিন! র‌্যাবের যেসব স্পেশাল কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণ দিয়েছেন, পরে তারা বলেছেন এই তিনজনই ‘কুইক লার্নার’ এবং ভালো পারফর্মার। এবার তারা ক্যামেরার সামনে নিজেদের র‌্যাব কর্মকর্তা হিসেবে উপযুক্তভাবে ডেলিভারি দিতে পারবেন বলে মনে করছেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ চলচ্চিত্রের নির্মাতা দীপঙ্কর দীপন।
>
নির্মাতা দীপংকর দীপন আরো বলেন, অতিরিক্ত ডিআইজি চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির (বিপিএম-সেবা), পিপিএম (বার) লে. কর্নেল মো. সারোয়ার বিন কাশেম বিপিএম (সেবা), পিএসসি, এসি এবং মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনি, এসিকে তাদের এই প্রশিক্ষণের জন্য বিশেষ কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। কারণ তারাই ছিলেন তারকাদের মূল প্রশিক্ষক। ‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে নির্মাতার ভাষ্য, বিশ্বের সবচেয়ে বড় ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে একসময় জলদস্যুদের অবাধ বিচরণ ছিল। যার ফলে সুন্দরবন ছিল সাধারণ মানুষের জন্য ভয়ের একটি জায়গা।

এমনকি সুন্দরবনের জেলেসহ অন্যরা জীবিকা নির্বাহের জন্য মাছ ধরতে ও মধু সংগ্রহ করতে পারত না। র‌্যাবের অভিযানের পরই এখন সুন্দরবন হয়েছে দস্যুশুন্য। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী র‌্যাবের ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট ও থ্রি হুইলারের অর্থায়নে নির্মাণ হবে এই সিনেমা। চলতি মাসেই সাতক্ষীরার উপকূলীয় এলাকা মুন্সিগঞ্জে টানা ১২ দিন শুটিং হবে ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এর। এরপর খুলনায় হবে বাকি কাজ। ছবিটি মুক্তির সম্ভাব্য তারিখ ২০২০ সালের ঈদুল আযহা। এ সিনেমায় আরো বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন নুসরাত ফারিয়া, তাসকিন রহমান, মনোজ প্রামানিক , সামিনা বাশার, দীপু ইমাম, এহসানুর রহমান প্রমূখ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন