গণধর্ষণের পর পুড়িয়ে হত্যা : অভিযুক্ত ৪ জনই পুলিশের গুলিতে নিহত

ভারতের তেলেঙ্গায় গণধর্ষণের পর পশু চিকিৎসককে নির্মমভাবে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত চারজনই পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন। ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের খবরে বলা হয়, শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) ভোরে অভিযুক্ত মোহাম্মদ আরিফ, নবীন, শিব ও চেন্নাকসভুলু এনকাউন্টারে প্রাণ হারিয়েছে। প্রথমে চারজন মাইল ধর্ষণ করে তারপর জীবন্ত পুড়িয়ে মারার ঘটনা শুনে কেঁপে উঠেছিল দেশবাসী। গত সপ্তাহে হায়দ্রাবাদের কাছে এক কালভাটের নিচ থেকে উদ্ধার হয় তার পোড়া শরীর।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, অভিযুক্ত চারজনকে ভোরে তদন্তের জন্য ঘটনাস্থলে নিয়ে গিয়েছিল পুলিশ।হায়দ্রাবাদ থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এ এলাকা থেকেই উদ্ধার করা হয়েছিল তরুণীর দগ্ধ শরীর। সেখান থেকেই পালানোর চেষ্টা করে তারা। এ সময় পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত এ চারজনের। অভিযুক্তরা ঘটনার দায়ও স্বীকার করেছিল।

২৮ নভেম্বর রাতে ঘটেছিল সেই মর্মান্তিক ঘটনা। এক তরুণীকে টুল-বুথের কাছে স্কুটার রেখে যেতে দেখে এ চার অভিযুক্ত। পেশায় তারা ছিল ট্রাক ড্রাইভার ও খালাসি। তারা ইচ্ছাকৃত তার স্কুটারের টায়ার পাংচার করে দিয়ে তার ফিরে আসার অপেক্ষা করতে থাকে। সে ফিরে এসে এমন ঘটনা দেখার পর এ চারজন তাকে সাহায্য করার ভান দেখিয়ে এগিয়ে আসে, আর তারপরই ঘটে নৃশংস ধর্ষণ ও হত্যালীলা। প্রথমে চারজনে মিলে ধর্ষণ করে জীবন্ত পুড়িয়ে দেওয়া হয় এ পশু চিকিৎসককে। তারা কোনো প্রমাণ না রাখতেই এমন ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছিল।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত