‘তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে প্রতিবন্ধীদেরও কর্মসংস্থান হবে’

প্রকাশিত: ডিসে ৫, ২০১৯ / ০২:৩১অপরাহ্ণ
‘তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে প্রতিবন্ধীদেরও কর্মসংস্থান হবে’

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারের মধ্য দিয়ে প্রতিবন্ধীদেরও কর্মসংস্থান হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল বাংলাদেশ। কাজেই তথ্য, যোগাযোগ, প্রযুক্তি ব্যবহারে প্রতিবন্ধীদেরও যেন কর্মসংস্থান হয়, সে ব্যবস্থা আমরা নিয়েছি।’ আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মিরপুরে প্রতিবন্ধী দিবসের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সংবিধানে প্রত্যেক মানুষের মতো প্রতিবন্ধীদের অধিকার নিশ্চিত করেছেন উল্লেখ করে এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান সরকার প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘জাতীয় তথ্য ও প্রযুক্তি নীতিমালা ২০০৯-এ বিষয়টি আমরা অন্তর্ভুক্ত করে দিয়েছি। আমাদের সমাজটাকে আমরা গড়ে তুলতে চাই একটা বৈষম্যহীন সমাজ। জাতির পিতা আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। এই স্বাধীন দেশে সব মানুষ সমান অধিকার নিয়ে বসবাস করবে, সেটাই হচ্ছে আমাদের লক্ষ্য।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের অনেক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা যাবে। সেখানে দেশি-বিদেশি অনেক সহযোগিতাও পাওয়া যাবে। তবে সেখানে যারা প্রতিবন্ধী, তাদেরই কর্মসংস্থানের সুবিধা দেওয়া হবে। সবাই এগিয়ে যাবে, কেউ পিছিয়ে থাকবে না।’

এ সময় জেলা-উপজেলা পর্যন্ত প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণ, শিক্ষা, চিত্তবিনোদনসহ কর্মসংস্থানের মতো বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা তৈরির পরিকল্পনার কথা জানান প্রধানমন্ত্রী। এ ছাড়া সংসদ ভবনের পাশে ও সাভারে প্রতিবন্ধীদের জন্য খেলাধুলার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধী, অটিজমের বিষয়ে বর্তমানে অনেক সচেতনতা তৈরি হয়েছে। তবে আগে দরকার দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন।’

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন