স্বর্ণজয়ী মারজান শঙ্কামুক্ত

কারাতে মেয়েদের দলগত কুমি চলাকালীন সময়ে বুধবার মাথায় চোট পেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া সোনাজয়ী মারজান আক্তার পিয়া শঙ্কামুক্ত। এ স্বর্ণকন্যা অ্যাথলেটের শঙ্কামুক্ত অবস্থার কথা জানিয়েছে কারাতে ফেডারেশন ও সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক।

কারাতে ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি কায়াও সু হলা জানান, ‘দলগত ফাইনালের সময় প্রতিপক্ষের আঘাতে কানের নিচের অংশে চোট পান মারজান। তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে দ্রুত ব্লু ক্রোস হাসপাতালে নেয়া হয়। চিকিৎসার পর সে এখন শঙ্কামুক্ত।’

হাসপাতালে জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাজওয়াল মান শ্রেষ্ঠা বলেছেন, ‘আমরা তাকে পরীক্ষা করছি। পেইনকিলার দেয়া হয়েছে। কারণ তিনি ঘাড়ের কাছে ব্যথা অনুভব করছিলেন। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক। কিন্তু আমরা অধিকতর পর্যবেক্ষণের জন্য একজন নিউরো স্পেশালিস্টকে ডেকেছি।’

মঙ্গলবার কারাতে দ্বিতীয় আর বাংলাদেশের তৃতীয় সোনার পদকটি এনে দিয়েছিলেন মারজান আক্তার। একদিন বাদেই তাকে ঘিরে আসে শঙ্কার সংবাদ। মাথায় চোট নিয়ে সোনাজয়ী অ্যাথলেটকে বুধবার দুপুরে যেতে হয় হাসপাতালে।

কাঠমান্ডুতে সাউথ এশিয়ান গেমসের ১৩তম আসরের চতুর্থদিনে নিজ ইভেন্ট কারাতে মেয়েদের দলগত কুমি চলাকালীন সময়ে চোট পান মারজান। দুঃসংবাদের লড়াইয়ে ম্যাচে মেয়েদের দলগত ইভেন্ট কুমিতে পাকিস্তানের কাছে হেরে রুপা জিতেছে বাংলাদেশ।

কারাতে মেয়েদের কুমি ইভেন্টে অনূর্ধ্ব-৫৫ কেজির ফাইনালে পাকিস্তানের কৌসরা সানাকে ৪-৩ পয়েন্টে হারিয়ে মঙ্গলবার সোনার পদক এনেছিলেন মারজান আক্তার পিয়া। সেমিফাইনালে নেপালের মানিশ চৌধুরীকে ২-১ পয়েন্টে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিলেন তিনি।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত