যুক্তরাষ্ট্রের ওপর পাল্টা অবরোধের হুমকি চীনের

হংকংয়ে চলমান বিক্ষোভ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে আইন পাসের পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে কয়েকটি মার্কিন বেসরকারি সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের ওপর অবরোধ আরোপের হুমকি দিয়েছে চীন। সেইসঙ্গে মার্কিন নৌবাহিনীর সদস্যদের হংকং সফর বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মানবাধিকার ও গণতন্ত্র নিয়ে কাজ করা যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কয়েকটি বেসরকারি সংস্থার ওপর অবরোধ দিতে যাচ্ছে চীন। এ তালিকায় রয়েছে ন্যাশনাল এনডাওমেন্ট ফর ডেমোক্রেসি, হিউম্যান রাইটস ওয়াচ, ফ্রিডম হাউস, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ইনস্টিটিউট ও ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনয়িং জানিয়েছেন, মার্কিন সংস্থাগুলো গত ছয় মাসে হংকংয়ের অস্থিরতায় খুব ‘খারাপভাবে’ কাজ করেছে। এ ছাড়া হংকংয়ে মার্কিন নৌবাহিনীর পরিদর্শনও বাতিল ঘোষণা করে চীন।

এর আগে গত সপ্তাহে হংকং নিয়ে দুটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর ফলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের জন্য হংকংয়ের ওপর অবরোধ আরোপ করতে পারবে ওয়াশিংটন। পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে হংকংয়ে যথাযথ স্বায়ত্তশাসন আছে কি না, তা পরীক্ষা করবে যুক্তরাষ্ট্র। এ ছাড়া হংকংয়ে টিয়ার শেলের গ্যাস, পেপার স্প্রে, রাবার বুলেট, স্টেনগানসহ বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণে ব্যবহৃত সামরিক সরঞ্জাম রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের এমন পদক্ষেপকে চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ভয়ানক হস্তক্ষেপ ও কর্তৃত্বপরায়ণ আচরণ বলে জানিয়েছিল চীন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে স্বেচ্ছাচারী আচরণ না করার পরামর্শ দিচ্ছি, নয়তো চীন এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে।’ পরবর্তী সময়ে চীনে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত টেরি ব্রানস্টাডকেও তলব করা হয়।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত