চায়নাতে কিভাবে বিনোয়োগ করবেন বললেন ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর পলাশ

চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে “২০২০ উদ্যোক্তা সম্মেলন”। চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের নিযুক্ত চায়না ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর জনাব পলাশ জানান, চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের উদ্যোগে আগামি ২৪ জানুয়ারী ২০২০ ইং (শুক্রবার) ধানমন্ডির ম্যারিয়া কনভেশন সেন্টারে “২০২০ উদ্যোক্তা সম্মেলন” অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। অনুষ্ঠানটি ২৪ জানুয়ারী (শুক্রবার) সকাল ৯:৩০ হতে রাত ৯ টা পর্যন্ত চলবে।

পলাশ আরও জানান, যারা উদ্যোক্তা হতে চাচ্ছেন কিন্তু পুঁজি কম বা পুঁজি আছে কিন্তু চায়না থেকে পণ্য আনার উপায় জানা নেই, জানা নেই কিভাবে বিনোয়োগ করবেন। তাদের সকল প্রশ্নের উত্তর নিয়ে, “আজকের উদ্যোক্তারাই আগামী বাংলাদেশ গড়ার কারিগর” এই প্রত্যয়কে সামনে রেখে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চায়না বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের “২০২০ উদ্যোক্তা সম্মেলন”।

এছাড়াও নতুন উদ্যোক্তাদের যেকোনো সহযোগিতায় পাশে থাকার আশ্বাস দেন চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের নিযুক্ত চায়নার এই ব্রান্ড অ্যাম্বাসেডর।

২০২০ উদ্যোক্তা সম্মেলনে অংশগ্রহন করে জানা যাবে, কিভাবে বিজনেস প্ল্যান করতে হয়, প্রডাক্ট ইম্পোর্ট ও এক্সপোর্ট করার প্রয়োজনীয়তা, প্রোডাক্ট সোর্সিং, পেমেন্ট সিস্টেম, বিদেশি ফাইন্যান্সিং থেকে শুরু করে সকল প্রকার তথ্য।

চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের “২০২০ উদ্যোক্তা সম্মেলন” সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে তাদের ওয়েবসাইট www.chinabangladeshbusinessclub.com বা www.facebook.com/ChinaBangladeshBusinessClub ফেসবুক পেজে। চায়না-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাবের আজীবন মেম্বারশীপ গ্রহন সংক্রান্ত সকল তথ্যও পাওয়া যাবে উক্ত ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক পেজ থেকে।

সকল পেশাজীবী এবং উদ্যোক্তাগণ এই ক্লাবের মেম্বার হয়ার মাধ্যমে পাবেন যেসকল সুবিধাগুলো :

* ব্যাবসা সংক্রান্ত যাবতীয় ডকুমেন্টরি দিয়ে সহযোগিতা
* বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ
* আমদানি-রফতানি সংক্রান্ত যাবতীয় সহযোগিতা
* ডেফার্ড এবং ইউপাস এল সি সংক্রান্ত সহযোগীতা
* প্রডাক্ট সোর্সিং
* ওয়ার হাউজ সুবিধা
* ডোর টু ডোর প্রডাক্ট ডেলিভারি
* ইনভাইটেশন লেটার ও ভিসা প্রসেসিং সাপোর্ট
* চায়নাতে থাকার সুবিধা ও পিয়ার সাপোর্ট
* চায়না ও বাংলাদেশে ব্যাবসায়িক কাজে অফিস ব্যাবহারের সুবিধা
* চায়না ও বাংলাদেশে ব্যাবসায়িক সকল সহযোগিতা প্রদান

উক্ত সম্মেলনের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বিজিএমই-এর প্রেসিডেন্ট ড. রুবানা হকসহ আরও অনেকেই।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত