আপিলেও যুদ্ধাপরাধী আজহারের ফাঁসি বহাল

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতে ইসলামীর নেতা এ টি এম আজহারুল ইসলামকে (আজহার) আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আপিল বিভাগের আজকের কার্যতালিকায় রায় ঘোষণার জন্য মামলাটি এক নম্বরে রাখা ছিল।

রায়কে কেন্দ্র করে আদালত চত্বরে আজ সকাল থেকে কঠোর নিরাপত্তা নেওয়া হয়। আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীদের তল্লাশির মধ্য দিয়ে আদালতে প্রবেশ করতে হয়। কোনো সাধারণ মানুষকে সকালে আদালতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।

এর আগে গত ১০ জুলাই মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল এ টি এম আজহারুল ইসলামের আপিলে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকবে কি না, এ বিষয়ে রায় যেকোনো দিন ঘোষণা করা হবে মর্মে অপেক্ষমাণ রাখেন আপিল বিভাগ।

আদালতে জামায়াত নেতা আজহারের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তাঁকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী শিশির মনির। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

গত ১৮ জুন এ টি এম আজহারুল ইসলামের আপিলের ওপর শুনানি শুরু হয়। আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড জয়নুল আবেদীনের পেপারবুক উপস্থাপনের মধ্য দিয়ে এ শুনানি শুরু হয়েছিল।

এর আগে গত ১০ এপ্রিল শুনানির জন্য এ দিন ধার্য করেন আদালত। ২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আজহারকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি ১১৩ যুক্তিতে আজহারকে নির্দোষ দাবি করে খালাস চেয়ে আপিল করেন তাঁর আইনজীবীরা। আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় ৯০ পৃষ্ঠার মূল আপিলসহ দুই হাজার ৩৪০ পৃষ্ঠার আপিল দাখিল করেন।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত