বাংলাদেশ-ভারত বহুমুখী সম্পর্কের অংশীদার: ভারত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নয়াদিল্লিতে স্বাগত জানিয়ে ভারত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের সম্পর্ককে বর্ণনা করেছে ‘সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারের এক সম্পর্ক’ হিসেবে।

সংবাদ সংস্থা ইউএনবি জানায়, শেখ হাসিনার সরকারি সফরে নয়াদিল্লিতে পৌঁছানোর ছবি টুইটারে শেয়ার করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ কথা বলে।

তারা আরো জানায়, বাংলাদেশ ও ভারত বহুমুখী সম্পর্কের অংশীদার, যা কৌশলগত অংশীদারিত্ব ছাড়িয়ে অনেক দূর পর্যন্ত বিস্তৃত।

চার দিনের এ সফরকালে শেখ হাসিনা শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক ও রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাথে সাক্ষাৎ করবেন।

বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে অভিন্ন নদীগুলোর পানিবণ্টন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন এবং বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

এ সফরে যুব ও ক্রীড়া, সংস্কৃতি, নৌ-পরিবহন, অর্থনীতি, সমুদ্র গবেষণা, পণ্যের মান নির্ধারণ, বাণিজ্য, শিক্ষা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা প্রভৃতি খাতে একাধিক সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের সম্মেলনে অংশ নিতে এবং ভারতের শীর্ষ নেতাদের সাথে বৈঠক করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার সকালে নয়াদিল্লি যান।

প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট সকাল সোয়া ৮টায় ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে এবং স্থানীয় সময় পৌনে ১০টায় নয়াদিল্লির পালাম এয়ারফোর্স স্টেশনে অবতরণ করে।

বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। তাকে স্বাগত জানান ভারতের শিশু ও নারী উন্নয়ন বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চুদ্রী, ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মুয়াজ্জেম আলী এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত