সৌদি রাজ পরিবারে ভাংগন শুরু

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের নেতৃত্বের ব্যাপারে রাজ পরিবারের অনেক সদস্য হতাশ হয়ে পড়েছেন এবং যুবরাজের বিরুদ্ধে সমালোচনা জোরদার হচ্ছে। সৌদি আরবের সর্ববৃহৎ তেল স্থাপনা আরামকোর উপর ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলন এবং তাদের সমর্থিত সেনাদের ড্রোন হামলার পর এই অবস্থা তৈরি হয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স গতকাল এই খবর দেয়।

একজন শীর্ষ পর্যায়ের বিদেশি কূটনীতিক এবং সৌদি রাজ পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ পাঁচটি সূত্র সবাই নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, আরামকো তেল স্থাপন এবং ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর রাজপরিবারের অনেক সিনিয়র সদস্য ও সৌদি আরবের অভিজাত শ্রেণীর লোকজন ক্ষুব্ধ হয়েছেন। এসব ব্যক্তি মনে করেন, তরুণ যুবরাজ ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিরুদ্ধে অত্যন্ত আগ্রাসী পররাষ্ট্র নীতি অনুসরণ করে চলেছেন।

একটি সূত্র বলেছে, মুহাম্মাদ বিন সালমানের নেতৃত্ব নিয়ে মারাত্মক রকমের প্রশ্ন তৈরি এবং ক্ষুব্ধ হয়েছেন ব্যক্তিদের প্রশ্ন হচ্ছে যে, “এই হামলা কিভাবে সনাক্ত করা সম্ভব হলো না?” সূত্রটি আরো বলেছে যে, দেশের অভিজাত শ্রেণীর লোকজন যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের ওপর আস্থা রাখতে পারছেন না। অন্য সূত্রগুলোও একই কথা বলেছে।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইয়েমেনের হুথি আন্দোলন সমর্থিত সেনারা আরামকো তেল স্থাপনার ওপর হামলা চালায়। এতে আরামকোর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে এবং সৌদি আরবের দৈনিক তেল উৎপাদনের অর্ধেক কমে গেছে।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত