টুইটার সদর দপ্তরের ভাড়া বাকি, রান্নাঘর বন্ধ, টয়লেট পেপার’ও নেই

প্রকাশিত: জানু ৩, ২০২৩ / ১১:৩০অপরাহ্ণ
টুইটার সদর দপ্তরের ভাড়া বাকি, রান্নাঘর বন্ধ, টয়লেট পেপার’ও নেই

একের পর এক রেকর্ডের মালিক বণে যাচ্ছেন টেসলা প্রধান ইলন মাস্ক। কয়েকদিন আগেই ২০ হাজার কোটি ডলার পরিমাণ অর্থ হারিয়ে বিশ্ব মিডিয়ার শিরোনামে মাস্ক। এবার টুইটার প্রসঙ্গে আবারো শিরোনামে মাস্ক। ইন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়েছে, টুইটার সদর দপ্তরে নেই টয়লেট পেপার, ভাড়া বাকি আর বন্ধ রান্নাঘরও।

টুইটারের দায়িত্ব নেওয়ার পর বেশ কিছু পরিবর্তন আনে মাস্ক।
এক.
দায়িত্ব নেওয়ার পর গণহারে কর্মী ছাটাই শুরু করেন মাস্ক। এমনকি প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে থাকা ব্যাক্তিদেরও তিনি ছাটাই করেন। পাশাপাশি হাজারো কর্মী ক্ষতিপূরণ নিয়ে স্বেচ্ছায় চাকরি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন।

দুই.
হোম অফিস বন্ধ ঘোষনা, মাস্ক দায়িত্ব নিয়েই কর্মীদের এই ঘোষণা দেন যে, যারা অফিসে এসে কাজ করতে চান না তারা তাৎক্ষণিক চাকরি ছেড়ে দিতে পারেন।

তিন.
ব্যয় কমাতে মাস্ক কর্মীদের দুপুরের খাবার কমিয়ে বছরে ১২৯ কোটি টাকা ব্যয় সংকোচন করেন, যা কোম্পানির আাগের সিদ্ধান্ত ছিল।

চার.
অফিসের আসবাব, রান্নাঘরের সরঞ্জাম এবং টুইটার সদর দপ্তরের কথিত সব ‘অবাঞ্ছিত সামগ্রী বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

পাঁচ.

সারাদিন কাজ করতে অফিসকেই শোবার ঘর হিসেবে ব্যবহারের জন্য সোফা, বিছানা ব্যবস্থা করেছেন মাস্ক, এ সংক্রান্ত কিছু ছবি সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ছয়.
অফিস সহকারী এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মীদেরও ছাঁটাই করেন মাস্ক। ফলে কর্মীদের টিস্যু পেপার কিনতে হচ্ছে এবং অফিস পরিষ্কার না করার কারনে দূর্গন্ধও ছড়াচ্ছে বলেও শোনা যাচ্ছে।

টুইটারের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জ্যাক ডরসি যেভাবে পরিচালনা করতেন, কোম্পানিটি আর সে অবস্থায় নেই। দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকেই খারাপ যাচ্ছে মাস্ক ও টুইটারের সময়। তবে মাস্ক গ্রাহক ধরে রাখতে নিত্য নতুন ফিচার আনার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন