মদ তেঁতো লাগায় বন্ধুকে ৯ টুকরো করে যুবক গ্রেফতার

প্রকাশিত: অক্টো ৫, ২০২২ / ১১:৪০অপরাহ্ণ
মদ তেঁতো লাগায় বন্ধুকে ৯ টুকরো করে যুবক গ্রেফতার

গাজীপুরের কালীগঞ্জে পোশাক শ্রমিক সবুজ বার্নাডকে (২৯) হত্যার পর নয় টুকরো করার ঘটনায় তার বন্ধু শাহীনুর রহমান শাহীনকে (২৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) সদস্যরা। রোববার (২ অক্টোবর) বিকেলে তার গ্রামের বাড়ি সাতক্ষিরার তালা উপজেলা থেকে গ্রেফতার করে রাতেই গাজীপুরে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে কালীগঞ্জের নাগরীর পানজোরা গ্রামের অমুল্য বার্নার্ড গোছালের ছেলে সবুজ বার্নাড গোছাল কারখানায় গিয়ে ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। শনিবার সকালে তার লাশের ৮ টুকরো স্থানীয় একটি ডোবা ও তার আশপাশে পাওয়া যায়।

পিবিআই সূত্র জানায়, শাহীন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সবুজকে খুনের কথা স্বীকার করে জানিয়েছে, ঘটনার রাতে তারা যৌথভাবে টাকা দিয়ে দামি মদ কেনে। মদ কেনার দায়িত্ব ছিল শাহীনের ওপর।

রাতে শাহীনের বাসায় বসে মদ খাওয়ার সময় তেঁতো লাগার কথা তুলে তর্কে জড়ায় সবুজ। এ নিয়ে বিতর্কের জেরে হত্যার পর সবুজের লাশ বঁটি ও হেকসো করাত দিয়ে ৯ টুকরো করেন শাহীন। এ সময় তার কারখানা শ্রমিক স্ত্রী নাইট ডিউটিতে ছিলেন। পরে খণ্ডিত টুকরো আশপাশের কয়েকটি স্থানে ফেলে দেয় সে যেনো লাশ শনাক্ত না করা যায়।

পিবিআইয়ের গাজীপুর পুলিশ সুপার মাকছুদের রহমান জানান, সোমবার ভোরে শাহীনকে গাজীপুর আনা হয়েছে। দুপুরে সবুজ হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন