দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম ফাইভজি চালু করল ভারত

প্রকাশিত: অক্টো ১, ২০২২ / ১১:৪৫অপরাহ্ণ
দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম ফাইভজি চালু করল ভারত

দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম দেশ হিসেবে ভারত ফাইভজি প্রযুক্তি চালু করেছে। আজ শনিবার দেশটির ১৩টি শহরের জন্য এই পরিষেবা উদ্বোধন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পঞ্চম প্রজন্মের ওয়্যারলেস সিস্টেম সংক্ষেপে ফাইভজি হচ্ছে উন্নত প্রযুক্তির ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক।

ভারতের টেলিযোগাযোগ দপ্তরের (ডিওটি) একটি সূত্র জানিয়েছে, বর্তমানে রাজধানীতে এবং আগামী ২৪ অক্টোবর দীপাবলি উৎসবের পর মুম্বাই, চেন্নাইসহ ভারতের ১৩টি শহরে চালু হবে এই পরিষেবা।

আগামী দুই বছরের মধ্যে সারা দেশে ফাইভজি চালু হবে বলে আশাবাদী দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার।
দিল্লির প্রগতি ময়দানে শুরু হয়েছে ইন্ডিয়া মোবাইল কংগ্রেস। শনিবার থেকে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত চলবে এই আয়োজন। ১ থেকে ৪ অক্টোবর আয়োজিত হবে ইন্ডিয়া মোবাইল কংগ্রেস।

ভারতের ধনকুবের মুকেশ আম্বানির মালিকানাধীন সিম কার্ড প্রস্তুতকারী কম্পানি রিলায়েন্স জিয়ো, সুনীল ভারতী মিত্তালের ভারতী এয়ারটেল, কুমার মঙ্গলম বিড়লার ভোডাফোন আইডিয়াসহ দেশটির সব সিম কার্ড প্রস্তুতকারী কম্পানি অংশ নিয়েছে সেই কংগ্রেস বা মেলায়।

শনিবার ফাইভজি পরিষেবা উদ্বোধনের পর মেলায় বিভিন্ন কম্পানির স্টল পরিদর্শন করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। ভারতের টেলিকম বিশেষজ্ঞদের দাবি, ভারতের জন্য ব্যাপক লাভজনক হবে এই ফাইভজি প্রযুক্তি এবং ২০২৩ থেকে ২০৪০ সালের মধ্যে শুধু এই খাত থেকেই ভারতের আয় হবে অন্তত ৫০ কোটি ডলার।

ফাইভজি স্পেকট্রামের সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ পেয়েছে মুকেশ আম্বানির প্রতিষ্ঠান রিলায়েন্স জিয়ো। ফাইভজি স্পেকট্রামের ৮৮ হাজার ৭৮ কোটি টাকার বরাদ্দ পেয়েছে এই কম্পানি। মোট ১০টি ব্যান্ডের ৭২ হাজার ৯৮ মেগাহার্টজের স্পেকট্রাম নিলামে তোলা হয়েছিল। এর মধ্যে ৭১ শতাংশ বিক্রি হয়েছে প্রায় দেড় লাখ কোটি টাকায়। সূত্র : এনডিটিভি

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন