ফারুকী যে কৃতিত্ব দিলেন কাজী সালাউদ্দিনকে

প্রকাশিত: সেপ্টে ২২, ২০২২ / ১০:৪০অপরাহ্ণ
ফারুকী যে কৃতিত্ব দিলেন কাজী সালাউদ্দিনকে

বাংলাদেশ তথা দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে একসময়কার সুপারস্টার কাজী সালাউদ্দিন বাফুফে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে দায়িত্ব পালন করছেন। কাতার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণসহ নানা কথা বলে বারবার তিনি সমালোচিত হয়েছেন। তার বাফুফে ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় অর্জনই এলো দিন তিনেক আগে। সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশের মেয়েরা।

কাজী সালাউদ্দিনের অনেক সমালোচনা থাকলেও মেয়েদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পেছনে তার অবদানের কথা স্মরণ করালেন চলচ্চিত্রকার মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

নিজের ভেরিফায়েড সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে ফারুকী লিখেছেন, মাঝেমধ্যে আমার মনে হয় আমরা সব কিছু এমনভাবে ঠেলতে শুরু করি যে তখন আর জিনিসপত্র অবজেক্টিভলি দেখার সুযোগ থাকে না। এই যেমন সালাউদ্দিন ভাই।

উনার বিতর্কিত শেষ নির্বাচন, সভাপতি পদে প্রায় চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত, অনেক সময়ই অপ্রয়োজনীয় এবং যুক্তিহীন কথা যেমন মেয়েদের বিয়ে দিতে সাহায্য করা, দৃষ্টিকটু রাগ―এ রকম আরো অনেক বিষয়েই সমালোচনা করা যাইতে পারে।

কিন্তু বহু বছর আগ থেকেই এই মেয়েদের এক সাথে রেখে ট্রেনিং করানো এবং এদের একটা টিম হিসাবে গড়ে উঠতে সাহায্য করাটাকে অ্যাপ্রিশিয়েট না করাটা ঠিক হবে না।

এমন কি উনাদের সর্বশেষ সংবাদ সম্মেলন ও ফটোসেশন ডিজাস্টারকে সমালোচনা করলেও তাতে তাদের এই কৃতিত্ব আড়াল করার সুযোগ নাই। গাইজ, প্লিজ লেটস গিভ দেম হোয়াট দে ডিজার্ভ। এখন যেটা দরকার সেটা হলো, এদের বেতন কাঠামো সম্মানজনক জায়গায় নেয়া।

এই বিষয়ে সবাই কথা বললে শুধু যে এই খেলোয়াড়দের জন্য ভালো হবে তা না, অন্য মেয়েরাও খেলায় আসতে উৎসাহিত হবে। এছাড়াও, দেশের ভিতর মেয়েদের নিয়মিত টুর্নামেন্ট কেমনে খেলানো যায় এসব নিয়েও ভাবা যাইতে পারে।

জেলায় জেলায় ফুটবল করা যায় কেমনে দেখা যাইতে পারে। এমনকি গুলশান, বনানী, ধানমন্ডি, উত্তরা, মিরপুরের স্কুলগুলাতে কি হচ্ছে, ওখানকার মেয়েরা কি খেলতে চায়, চাইলে কিভাবে ওদের ইনক্লুড করা যায়, এ রকম নানা আইডিয়া নিয়া ভাবেন। এই মনোযোগ আর জোয়ারটাকে পজিটিভলি কাজে লাগানো যায় কিভাবে সেটা ভাবি আসেন। ধন্যবাদ। ’

https://www.facebook.com/mostofa.farooki/posts/8316971661676249

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন