কিডনিতে পাথর হয়েছে কিনা বুঝবেন কীভাবে

প্রকাশিত: সেপ্টে ২২, ২০২২ / ০৪:৩০অপরাহ্ণ
কিডনিতে পাথর হয়েছে কিনা বুঝবেন কীভাবে

এনটিভির নিয়মিত স্বাস্থ্যবিষয়ক অনুষ্ঠান স্বাস্থ্য প্রতিদিনের একটি পর্বে এ বিষয়ে কথা বলেছেন আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজের ইউরোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. আফজার উদ্দীন শেখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন পুষ্টিবিদ নুসরাত জাহান দীপা।

কীভাবে একজন মানুষ বুঝবেন তাঁর কিডনিতে পাথর হয়েছে, সঞ্চালকের এ প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক ডা. আফজার উদ্দীন শেখ বলেন, অনেক সময় লক্ষণ থাকে, অনেক সময় থাকে না। অনেকে বছরে একবার চেকআপ করে, আলট্রাসনোগ্রাম করে। তখন ধরা পড়ে।

কোনও লক্ষণ নেই, কিডনির ভেতর একটা ছোট পাথর আছে, অনেক স্টোনই; আমি বলব কমপক্ষে ৫০ শতাংশের ক্ষেত্রে কোনও লক্ষণ প্রকাশ করে না। কিন্তু যখন লক্ষণ তৈরি হয়, তখন সাধারণত যেগুলো থাকে, সেগুলোতে ব্যথা হয়।

আমাদের জানতে হবে কিডনিটা কোথায় থাকে। কিডনি উপরের পেটে পেছনের দিকে থাকে। সাধারণত ব্যথা পেছনের দিকে হয়। যেটাকে আমরা অনেক সময় লো ব্যাক পেইন বলে থাকি।

অধ্যাপক ডা. আফজার উদ্দীন শেখ বলেন, ব্যথা দুরকম হয়। যদি কিডনির মধ্যে থাকে, হালকা ব্যথা হয়। তাহলে ব্যথা যদি কোনও কারণে ইউরেটার বা প্রস্রাবের নালির মধ্যে নেমে আসে, তাহলে ইমারজেন্সি হয়ে যায়। ভয়ানক ব্যথা হয়, পেটের ব্যথা হয়, সিভিয়ার ব্যথা হয়।

রোগীর বমি থাকে, জ্বর থাকতে পারে; এগুলোকে ইউরেটারি স্টোন বলে। ওটা একটা ইউরোলজিক্যাল ইমারজেন্সি, ওটা সাথে সাথে ম্যানেজ করতে হবে। তা ছাড়া প্রস্রাব পরীক্ষা করলে রক্ত পাওয়া যেতে পারে, অনেক সময় ইনফেকশন হয়, অনেক সময় পাথর নালি ব্লক করে দিয়ে কিডনির মধ্যে ইনফেকশন হয়।

কিডনিতে পাথর যদি নালির ভেতর হয়, সিভিয়ার ধরনের সমস্যা। প্রথমে প্রচণ্ড ব্যথা হয়। ব্যথা হয় তখনই, যখন পাথরটা নিচের দিকে নামতে থাকে, মুভ করতে থাকে।

কিডনিতে পাথর হওয়ার লক্ষণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে উপর্যুক্ত ভিডিওটি সম্পূর্ণ দেখুন। এ ছাড়া স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত জানতে এনটিভি হেলথ ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং জানুন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন