প্রবাসীর স্ত্রীকে অচেতন করে আপত্তিকর ভিডিও, অতঃপর

প্রকাশিত: আগ ১৫, ২০২২ / ০৩:০২অপরাহ্ণ
প্রবাসীর স্ত্রীকে অচেতন করে আপত্তিকর ভিডিও, অতঃপর

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলায় প্রবাসীর স্ত্রীকে (৩২) অচেতন করে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে চাঁদা দাবির অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযুক্ত দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলো— চারখিল উপজেলার কড়িহাটি গ্রামের নুর হোসেন ড্রাইভারের ছেলে মোতাহের হোসেন স্বপন (৩৮), একই গ্রামের মৃত হোসেনের ছেলে মিজানুর রহমান টিপু (২৯)।

চাটখিল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবির বলেন, রোববার রাতে ভুক্তভোগী গৃহবধূ বাদী হয়ে দুজনকে আসামি করে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে চাটখিল থানায় এ মামলা করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, গত সোমবার ওই দুই আসামি সুকৌশলে গৃহবধূর রান্নাঘরে থাকা দুধের সঙ্গে ঘুমের চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে দেয়। প্রতিদিনের ন্যায় গৃহবধূ তার সন্তানদের নিয়ে রাতের খাওয়া শেষে দুধ পান করে তার শয়নকক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন।

রাত দেড়টার দিকে দুই আসামি গৃহবধূর শয়নকক্ষে ঢুকে গৃহবধূর বিবস্ত্র ছবি ও ভিডিও ধারণ করতে থাকে। এ সময় ওই গৃহবধূ টের পেলে স্বপন তাকে জোর করে ধর্ষণের চেষ্টা করে। একপর্যায়ে গৃহবধূর চিৎকারে দুই আসামি পালিয়ে যায়।

এজাহার সূত্রে আরও জানা যায়, গৃহবধূর বিবস্ত্র ছবি আসামি টিপু মোবাইলে প্রেরণ করে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না দিলে বিবস্ত্র ছবি ও ভিডিও গৃহবধূর প্রবাসী স্বামীর কাছে প্রেরণসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পাশাপাশি গৃহবধূর সঙ্গে অনৈতিক কার্যকলাপ করার কুপ্রস্তাবসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয় আসামিরা।

ওসি (তদন্ত) আরও জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়ে রোববার রাতেই দুই আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোমবার সকালে আসামিদের নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন