মিশরের তরুনী এখন বীরগঞ্জের গ্রামীন গৃহবধু

প্রকাশিত: আগ ৯, ২০২২ / ০৯:৩৯অপরাহ্ণ
মিশরের তরুনী এখন বীরগঞ্জের গ্রামীন গৃহবধু

ভাষা-সংস্কৃতির ভেদাভেদ ভুলে বিয়ে করে বাংলাদেশে এসে কৃষক পরিবারে সংসার শুরু করেছেন নুরহান (২০) নামে এক মিসরীয় তরুণী। চার বছর আগে পিরামিডের দেশ মিসরে কাজের সুবাদে পরিচয় হয় বাংলাদেশি যুবক শমসেরের (৩৫) সঙ্গে। গড়ে উঠে বন্ধুত্ব।

বন্ধুত্ব থেকে প্রেম, দুই মাসের মাথায় তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এর চার বছর পর গত ১০ জুলাই দুই সন্তানসহ নুরহান স্বামীর বাড়ি বাংলাদেশে এসেছেন।

এদিকে ভিনদেশি বধূ ঘরে আসায় খুশির আমেজ শমসেরের পরিবারের। জানাজানির পর বিদেশি বধূ দেখতে প্রতিদিনই আসছেন বিভিন্ন এলাকার মানুষ। শমসের দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার শতগ্রাম ইউপির অর্জুনাহার গ্রামের কৃষক বাদশা মিয়ার ছেলে।

শমসের-নুরহান দম্পতির এক মেয়ে ও এক ছেলে। মেয়ের নাম রুকাইয়া (৩) ও ছেলে মো. ইয়াসিন (১১ মাস)। নুরহান সাংবাদিকদের বলেন, পরিবারের মতামত নিয়ে তিনি বাংলাদেশে এসেছেন।

এদেশটা সুন্দর। খোলা মাঠ আর খোলা আকাশ সঙ্গে সবুজ প্রান্তর দেখে প্রাণ জুড়িয়ে যায়। ইচ্ছে এখানেই স্বামীর সংসার করবেন। এ পরিবারের লোকজন খুব স্নেহ করে বলে জানান তিনি। নুরহানের স্বামী শমসের জানান, দুজনের কৃষ্টি-কালচার ভিন্ন হলেও এখন পর্যন্ত তাদের মধ্যে কোনো সমস্যা হয়নি।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন