কিডনি সুস্থ রাখতে যেসব ভুলেও খাবেন না

দেহের অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের মতো কিডনি খুব গুরুত্বপূর্ণ দুটি অঙ্গ। মানবদেহের বর্জ্য নিঃসরণ করে দেহ সুস্থ ও রোগমুক্ত রাখতে এ অঙ্গ বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কিন্তু তেমন কোনো লক্ষণ প্রকাশ না করে দেহের এ গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ বিকল হয়ে পড়তে পারে যে কোনো সময়। তাই সাবধান হওয়া জরুরি এখনই।

কিডনি ভালো রাখতে নিয়মিত হাঁটুন। সাইকেল চালান। সপ্তাহে এক বা দুবার সাঁতার কাটুন। বাড়তি ওজন কিডনি রোগের সুযোগ সৃষ্টি করে। ভোজনে সতর্ক হোন। ফাস্টফুড এড়িয়ে চলুন। বাসা বা রেস্তোরাঁর মসলাদার খাবার এড়িয়ে চলুন। বাড়তি লবণের প্রয়োজন নেই।

অতিরিক্ত লবণ শুধু কিডনি রোগের ঝুঁকিই বাড়ায় না, উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকিও বাড়ায়। উচ্চ রক্তচাপ শুধু হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকিই বাড়ায় না, কিডনি বিকলেও ভূমিকা রাখে। তাই চিকিৎসকের পরামর্শমতো নিয়মিত উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের ওষুধ সেবন করে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখুন। ডায়াবেটিসও কিডনি বিকলের ঝুঁকি বাড়ায়। ডায়াবেটিসে আক্রান্তের অর্ধশতাংশেরই কিডনি রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে।

এ ঝুঁকি থেকে রেহাই পেতে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীরা নিয়মিত রক্তে শর্করার মাত্রা পরীক্ষা করান এবং প্রতি তিন মাস অন্তর কিডনি ফাংশন টেস্ট করান। অনেকেই জানেন না, ধূমপান কিডনি রোগ সৃষ্টি করতে পারে। ধূমপানের ফলে রক্তে চর্বি জমাট বাঁধার মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে কিডনিতে রক্ত প্রবাহের মাত্রা কমে গিয়ে কিডনির কার্যক্ষমতা হ্রাসের মাধ্যমে কিডনি বিকল হতে পারে। ধূমপানের ফলে হতে পারে কিডনি ক্যানসারও।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত