গেঁটে বাত কেন হয়

রক্তে ইউরিক এসিডের মাত্রা বেশি হলে হতে পারে গেঁটে বাত। কিছু খাবার আছে, যেগুলো খেলে শরীরে ইউরিক এসিডের পরিমাণ বেড়ে যায়। তা এতটা বেশি যে কিডনি সেটা শরীর থেকে বের করতে পারে না এবং ক্রমেই আপনার শরীরের এর উপস্থিতি বাড়তে থাকে। এটি বেড়ে গেলে হাঁটুসহ বিভিন্ন অস্থিসন্ধিতে ইউরিক এসিড জমা হতে থাকে। তাতে অস্থিসন্ধি ফুলে যায় এবং ব্যথা হয়।

মূত্রের মাধ্যমে যে পরিমাণ স্বাভাবিক ইউরিক এসিড বেরিয়ে যায়, তার চেয়ে বেশি পরিমাণ যখন শরীর তৈরি করে, তখনই সমস্যা দেখা দেয়। একটু সচেতন হয়ে খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন আনলে ইউরিক এসিড অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব।

এই সমস্যায় যেসব খাবার পরিহার করা উচিত সেগুলো হলো– বেশি চর্বিযুক্ত মাংস, যেমন গরু, খাসি, ভেড়া ও মহিষের মাংস, কলিজা, মগজ, মাছের ডিম, চিংড়ি মাছ, কাঁকড়া, শামুক, ডিমের কুসুম এড়িয়ে চলতে হবে। সব রকমের ডাল, বাদাম, মটরশুঁটি, শিমের বিচি, কাঁঠালের বিচি ইত্যাদি পরিহার করতে হবে। কিছু শাকসবজি যেমন– পালংশাক, পুঁইশাক, ফুলকপি, বাঁধাকপি, গাজর, মিষ্টিকুমড়া, ঢেঁড়স ও পাকা টমেটো খাবেন না। অ্যালকোহল, ক্যাফেইন জাতীয় পানীয়, চা, কফি, কোমল পানীয় পরিহার করা ভালো।

তবে চর্বিহীন মাংস যেমন– ছোট মুরগির মাংস, মাছ, কুসুম ছাড়া ডিম পরিমাণমতো খাওয়া যাবে। বেশি আঁশযুক্ত খাবার যেমন– সবজি, শাক ইত্যাদি খেতে পারেন। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট জাতীয় খাবার যেমন– লেবু-চা, ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল যেমন পেয়ারা, আমলকী, কমলা খেতে পারেন। বেশি পরিমাণ পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন আড়াই থেকে তিন লিটার পানি পান করতে হবে। এ ছাড়া বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চিকিৎসা নিন, ভালো থাকুন।

প্রিয় পাঠক, আপনার মূল্যবান শেয়ার / মতামতের এর জন্য ধন্যবাদ।

পাঠকের মতামত