যে গ্রাম চলে প্রবাসীদের টাকায়

প্রকাশিত: জানু ২৭, ২০২২ / ০৫:৫২অপরাহ্ণ
যে গ্রাম চলে প্রবাসীদের টাকায়

নিজ দেশের মায়া ত্যাগ করে বেশি টাকা আয় করতে ও পরিবারের সদস্যদের ভালো রাখতে দূরদেশে পাড়ি জমান অনেকে।

সে সব প্রবাসীরা কষ্ট করে আয় করে টাকা পয়সা পাঠান বাড়িতে। এমনও দেখা যায় এক গ্রাম থেকে ২০-২৫ জন বা তারও বেশি মানুষ চলে যান অন্য দেশে।

তবে ম্যাক্সিকোর পশ্চিমের প্রদেশ মিকোয়াকানের কোমাকুয়েন গ্রামের বাসিন্দাদের বিষয়টি আলাদা। কারণ আদিবাসীদের এই পুরো গ্রামটিই চলে প্রবাসীদের টাকায়।

প্রায় ১০ হাজার মানুষ বাস করে এই গ্রামে।তবে এখানে পুরুষের সংখ্যা খুবই কম। পুরুষদের প্রায় সবাই পাশ্ববর্তী যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে কাজ করে। কেউ করে কৃষিকাজ। কেউ কল কারখানায়। যারা কৃষিকাজ করে থাকেন তারা বছরের একটি নির্দিষ্ট সময় পর ফিরে আসেন।

মেক্সিকো থেকে অনেক মানুষ উন্নত জীবনের আশায় ঝুঁকি নিয়ে অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে যায়।কিন্তু কোমাকুয়েন গ্রামের পুরুষরা নিয়মিত টাকা পাঠায় বলে এখানকার নারীরা নিজ গ্রামেই থাকে।

এদিকে কোমাকুয়েন গ্রামে যে কজন পুরুষ আছেন তাদের বেশিরভাগ কাঠের ব্যবসা,নির্মাণকাজ ও কাপড়ের ব্যবসা ও ছোট দোকান চালায়।

কাঠের ব্যবসা ও নির্মাণকাজ এখানে এখানো বিদ্যমান আছে কারণ প্রবাসীদের পাঠানো টাকায় অনেকেই নতুন ঘর-বাড়ি তৈরি করেন।

সত্র: আল জাজিরা

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন